ভ্রমণের আগে পরে

Travelকেউ কেউ বলে থাকেন, ঘুরে বেড়ানোর জন্য শীতকালই শ্রেয়। ভ্রমণপিপাসুরা কিন্তু এ কথা মানতে নারাজ। কেননা তাদের মতে, বছরের প্রতিটি দিনই ভ্রমণ উপযোগী। শুধু সুযোগ করে ব্যাগ-প্যাক গুছিয়ে বেরিয়ে পড়া। তবে যখনই আর যেখানেই ঘুরতে বের হন না কেন কিছু কথা মাথায় রাখলে আপনার ভ্রমণ হবে মনে রাখার মতো—

একটু ধৈর্য

ভ্রমণের সময় যেহেতু সম্পূর্ণ নতুন জায়গায় গিয়ে থাকতে হয়, সেক্ষেত্রে অনাকাঙ্ক্ষিত অনেক ঘটনাই ঘটতে পারে। তবে এসব ক্ষেত্রে মাথা ঠাণ্ডা রেখে সমাধানের চেষ্টা করাই উত্তম। এক্ষেত্রে ধৈর্যের পরীক্ষা আপনাকে দিতেই হবে। তবে ভ্রমণ হবে আরো আনন্দময়।

ঘুমিয়ে নয়

আপনি যদি খুব ঘুম কাতুরে স্বভাবের হন, তবে চেষ্টা করুন কোথাও ঘুরতে গেলে একটু সকাল সকাল জেগে ওঠার। কেননা ওই সময়ের একেকটা মুহূর্ত আপনাকে দেবে একেক রকম অনুভূতি। তাই ঘুমিয়ে সময়টাকে কমিয়ে ফেলা বোকামিই হবে।

হাসিতেই বিশ্বজয়

নতুন জায়গায় ঘুরতে গেলে নিজেকে একটু অসহায় মনে হতেই পারে। সেটাকে কাটিয়ে তুলুন হাসিতে। অনেক বেশি ঘাবড়ে না গিয়ে পরিস্থিতিটাকে সহজ করে নিন হাসি দিয়ে। আত্মবিশ্বাস রাখুন মনের ভেতর।

অর্থ বিনে

ভ্রমণে বের হবেন পর্যাপ্ত অর্থের জোগাড় করে, কেননা সম্পূর্ণ অপরিচিত জায়গায় বিপদে একমাত্র ভরসাই অর্থ।

স্থানীয়দের সঙ্গে সখ্য তৈরি করুন

যেখানেই বেড়াতে যান না কেন, ওই অঞ্চলের মানুষজনের সঙ্গে পরিচিত হতে ভুলবেন না। কেননা তাদের ভাষা, সংস্কৃতি, জীবনযাপনের ধরন জানাটা মন্দ হবে না। এতে আপনার অভিজ্ঞতার ঝুড়িটাও ভারী হবে।

আঞ্চলিক খাবারের স্বাদ

যেখানেই যান না কেন, ওখানকার আঞ্চলিক খাবারের স্বাদ না নিয়ে আসাটা পরবর্তীতে আফসোসের কারণ হবে। প্রতিটি অঞ্চলের নিজস্ব ঐতিহ্যবাহী কিছু খাবার রয়েছে, সেগুলো না চেখে আসাটা মস্ত বড় ভুলই হবে।

ভুলে গেলেই বিপদ

ছোটখাটো জিনিসগুলো নিতে ভুল হয় বরাবরই। কিন্তু এগোলই খুব প্রয়োজনীয় অনুষঙ্গ। যেহেতু সময়টা এখন গরমকাল, সেহেতু সান প্রোটেকশন ক্রিম, নরম তোয়ালে, নোজ মাস্ক, রোদ চশমা, ক্যাপ বা হ্যাট ইত্যাদি সঙ্গে রাখুন।

ছবিই স্মৃতি

ঘুরতে গেলে ছবি তুলতে ভুল হওয়ার কথা নয়, কারোরই। তবে ভুল যেটা হয় ক্যামেরার চার্জার, মেমোরি কার্ড কিংবা প্রয়োজনীয় অনুষঙ্গ নিতে। একদমই এ ভুল করা যাবে না। কেননা ছবিই পরবর্তীতে ভ্রমণের সুন্দর সময়গুলোকে মনে করিয়ে দেবে।

অতিরিক্ত পরিকল্পনা কিছুতেই নয়

ভ্রমণে বের হওয়ার আগে কিছু পরিকল্পনা করে নেয়াটা উত্তম। কিন্তু অতিরিক্ত পরিকল্পনা করা থেকে বিরত থাকা আরো উত্তম। অতিরিক্ত পরিকল্পনায় ভেস্তে যেতে পারে ভ্রমণের আনন্দ। তাই কিছুটা ছেড়ে দিন পরিস্থিতির ওপর।