সহজলভ্য হচ্ছে হেলিকপ্টারে ভ্রমণ

helicopterএক সময় পালকিতে বিয়ের রেওয়াজ ছিল, তারপর গরুর গাড়ি মোটর গাড়ির রেওয়াজ ছিল। কিন্তু এখন আবার শুরু হয়েছে হেলিকপ্টারে বিয়ে। তবে অনেক ব্যয়বহুল হওয়ায় সবার পক্ষে সেটি সম্ভব হয় না। তাই এবার এটি সহজলভ্য হচ্ছে!

ব্যয়বহুল হওয়ায় খুব কম সংখ্যক ব্যক্তি হেলিকপ্টারে বিয়ের কাজ সারেন। কারণ একমাত্র ধনী ব্যক্তিদের বিয়েতে একটু ভিন্নতার ছোঁয়া লাগানোর জন্য নানা উপায় খুঁজে বের করেন তারা। তবে এখন থেকে আপনারও যদি এরকম কোন ইচ্ছা থাকে, তাহলে এবার আপনিও সেই ব্যবস্থা করতে পারেন অনায়াসে।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, বড়দিনের আসরে ড্রুম নামের একটি অনলাইন পোর্টাল এই ধরনের সেবা প্রদানের কাজে নিয়োজিত হয়েছেন। তারা বড়দিনে অনলাইনের মাধ্যমে বুকিং নিয়ে হেলিকপ্টার ভাড়া দিয়েছেন। প্রতি একজন মানুষের জন্য খরচ পড়েছে মাত্র ২,৫০০ রুপি। আপাতত এই সুবিধা ভারতবাসীরা পাচ্ছেন।

ড্রুম ডট কমের প্রতিষ্ঠাতা জানিয়েছেন, অতীতে এই সুবিধা মাত্র কয়েকজন মানুষের জন্য বরাদ্দ ছিল। বর্তমানে সমাজের সকলে যেনো এই সুবিধা ভোগ করতে পারে এর জন্য বেঙ্গালুরু, মুম্বাই ও পুনেতে হেলিকপ্টারের সুব্যবস্থা করা হয়েছে। সেখানে প্রতি ৩০ মিনিটে ৫ জন মানুষ একত্রে ভ্রমণ করতে পারছেন!

অবশ্য আমাদের দেশেও এই ব্যবস্থা অনেক আগে থেকেই রয়েছে। তবে অনেক বেশি টাকার বিষয় হলেও বর্তমানে বেশ সুবিধাজনক দরে হেলিকপ্টারে ওঠা যায়। পুরানো বিমানবন্দরে যেয়ে আলাপ করলে আপনিও হেলিকপ্টারে উঠার স্বাদ মেটাতে পারেন। আপনার প্রতি ঘণ্টায় ব্যয় করতে হবে ১৫,০০০ টাকা- সংবাদ মাধ্যমের এক তথ্যে এমনই বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি দেশীয় কয়েকজন অভিনেত্রীও ঈদ ও পূজোতে হেলিকপ্টারে করে নিজ গ্রামের বাড়িতে গিয়ে সকলকে তাক লাগিয়ে দেন।