সুইস পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে বোরকা নিষিদ্ধের প্রস্তাব পাস

base_1475080745-swiss-aljazeera

সুইজারল্যান্ডের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ বোরকা নিষিদ্ধের একটি প্রস্তাব অনুমোদন করেছে। এ ব্যাপারে রক্ষণশীলদের আনীত প্রস্তাব মঙ্গলবার এক ভোটের ব্যবধানে পাস হয়েছে। খবর আল জাজিরা।

অভিবাসনবিরোধী সুইস পিপলস পার্টির রাজনীতিক ওয়াল্টার ওবম্যান প্রস্তাবটি উত্থাপন করেন। পার্লামেন্টে প্রস্তাবের পক্ষে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, বোরকা নিষিদ্ধ হলে সুইজারল্যান্ডের সংস্কৃতি সুরক্ষা পাবে। এর ফলে চরমপন্থার প্রবণতাও রোধ হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

বার্তা সংস্থা এটিএসকে ওয়াল্টার ওবম্যান বলেছেন, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা এবং নারীর মর্যাদার প্রতি শ্রদ্ধা রাখতে বোরকা নিষিদ্ধের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

কট্টরপন্থী রাজনীতিক ওয়াল্টার ওবম্যান ২০০৯ সালে সুইজারল্যান্ডের মসজিদগুলোয় মিনার নির্মাণের বিপক্ষে পার্লামেন্টে প্রস্তাব উঠিয়েছিলেন। সুইস পার্লামেন্টে ওই প্রস্তাব পাস হয়।

ওয়াল্টার ওবম্যানের উত্থাপিত সর্বশেষ প্রস্তাব নিয়ে মঙ্গলবার সুইস পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে ভোটগ্রহণ হয়। এ সময় পার্লামেন্টের ৮৮ জন সদস্য প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেন। অন্যদিকে প্রস্তাবের বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন ৮৭ জন। ওবম্যানের সুইস পিপলস পার্টি বর্তমানে পার্লামেন্টে সবচেয়ে বড় দল। ২০১৫ সালের নির্বাচনে দলটি ৩০ শতাংশ আসন পেয়েছে।

মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত ভোটাভুটিতে মধ্য ডানপন্থী এমপিরা ওবম্যানের প্রস্তাবের পক্ষে অবস্থান নেন। পূর্ণাঙ্গ আইনে পরিণত হতে হলে প্রস্তাবটি সুইস পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষে পাস হতে হবে। এর পর সুইজারল্যান্ড সরকারের সম্মতি পেলে তা আইনে পরিণত হবে।

পর্যবেক্ষকদের মতে, সুইস পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষে প্রস্তাবটি অনুমোদন করাতে রক্ষণশীলদের বেগ পেতে হবে। কেননা পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষে সোস্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টির সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে। সোস্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টিসহ কয়েকটি দল বোরকা নিষিদ্ধের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে।

এর আগে সুইজারল্যান্ডের প্রতিবেশী দেশ ফ্রান্সে বোরকা নিষিদ্ধ হয়েছে। চলতি বছরের শুরুতে সুইজারল্যান্ডের ইতালীয় ভাষাভাষী স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল তিচিনোয় বোরকা নিষিদ্ধ হয়েছে। স্থানীয় অধিবাসী ও পর্যটক সবার জন্য আইনটি সমানভাবে প্রযোজ্য। গত মাসে এক জরিপে দেখা যায়, সুইজারল্যান্ডের নাগরিকদের ৭১ শতাংশ তিচিনোর মতো সারা দেশে বোরকা নিষিদ্ধের পক্ষে রয়েছে।

বোরকা নিষিদ্ধের পক্ষে প্রচারণায় অংশগ্রহণকারীরা পার্লামেন্টের সিদ্ধান্তকে বোরকা নিষিদ্ধের পথে অগ্রগতি হিসেবে দেখছেন। প্রস্তাব উত্থাপনকারী এমপি ওয়াল্টার ওবম্যান সুইজারল্যান্ডে বোরকা নিষিদ্ধের প্রশ্নে গণভোট আয়োজনের প্রস্তাব দিয়েছেন। গণভোটের প্রস্তাবের পক্ষে এক লাখ স্বাক্ষর সংগ্রহের একটি কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন তারা।

সুইজারল্যান্ডের মোট জনসংখ্যা ৮০ লাখ। এর মধ্যে মুসলিম জনগোষ্ঠীর সংখ্যা ৩ লাখ ৫০ হাজার। পর্যবেক্ষকদের মতে, গণভোট আয়োজন না হলে বোরকা নিষিদ্ধের প্রস্তাব সুইস পার্লামেন্টে পাস হওয়ার সম্ভাবনা নেই।