প্রিন্স সুলতান পুরস্কার পেলেন বাংলাদেশী বিজ্ঞানী

প্রিন্স সুলতান পুরস্কার পেলেন বাংলাদেশী বিজ্ঞানী

কলেরা রোগের প্রাদূর্ভাব সম্পর্কে পূর্বাভাস দেয়ার কৌশল উদ্ভাবনের জন্য মর্যাদাপূর্ণ প্রিন্স সুলতান বিন আব্দুল আজিজ ইন্টারন্যাশনাল প্রাইজ ফর ওয়াটার (PSIPW) পুরস্কার পেয়েছেন বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত বিজ্ঞানী ড. শফিকুল ইসলাম।

ড. শফিকুল ও তার দলের উদ্ভাবনটি হলো: স্যাটেলাইট থেকে প্রাপ্ত ক্লোরোফিল ডাটা ব্যবহার করে কমপক্ষে তিন থেকে ছয় মাস আগে থেকেই কোনো অঞ্চলে কলেরার প্রাদূর্ভাব সম্পর্কে ভবিষ্যদ্বাণী করতে পারার একটি মডেল তৈরি করেছেন তারা। শুধু তা-ই নয়, উদ্ভাবিত মডেলটির পরীক্ষণও সম্পন্ন হয়েছে সফলভাবে।

এই গবেষক দলের নেতৃত্বে ছিলেন ড. শফিকুল ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্রের ম্যারিল্যান্ড ইউনিভার্সিটির ড. রিটা কলওয়েল। ড. শফিকুল যুক্তরাষ্ট্রেরই টাফটস ইউনিভার্সিটিতে অধ্যাপনা করেন।

PSIPW এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, এটি তাদের সপ্তম পুরস্কার। এর ঘোষণা এসেছে গত ৫ অক্টোবর। আনুষ্ঠানিকভাবে পুরস্কার হস্তান্তর করা হবে আগামী ২ নভেম্বর নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদরদপ্তরে।

ওয়েবসাইটটির সূত্রে আরো জানা যাচ্ছে, বঙ্গোপসাগর অঞ্চলের তথ্য উপাত্ত নিয়েই ড. শফিকের মডেলটির পরীক্ষণ চালানো হয়েছে। এর উপাত্ত নেয়া হয়েছে স্যাটেলাইট থেকে। এখন গবেষক দল ভূপৃষ্ঠ থেকে উপাত্ত সংগ্রহ করে তাদের মডেলটি পরীক্ষা করতে কাজ করছেন।

এ বছরের ক্রিয়েটিভিটি পুরস্কারটি আরেকটি গবেষক দলও পাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির ড. পিটার জে ওয়েবস্টার এবং তার দল সমুদ্র ও আবহাওয়ার মধ্যকার সম্পর্ক এবং মৌসুমী বায়ুর ওপর এর প্রভাব নিয়ে গবেষণা করেছেন। তারা এর ভিত্তিতে বর্ষাকালের বন্যা সম্পর্কে এক থেকে দুই সপ্তাহ আগেই পূর্বাভাস দেয়ার কৌশল উদ্ভাবন করেছেন। এ ধরনের বন্যা বিশেষ করে উপকূলীয় অঞ্চলে বসবাসকারী মানুষদের জন্য প্রায় প্রতি বছর ভয়াবহ বিপর্যয় ডেকে আনে।