বন্ধ হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার দূষণকারী বিদ্যুৎকেন্দ্র

australia

বন্ধ হয়ে যাচ্ছে বিশ্বের অন্যতম দূষণ সৃষ্টিকারী কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র হেজেলউড। গতকাল অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়া রাজ্যে অবস্থিত বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রটি ২০২৩ সাল নাগাদ সম্পূর্ণরূপে বন্ধ করে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে মালিকপক্ষ। পরিবেশবাদীরা এ পদক্ষেপকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। খবর এএফপি।

মানব সৃষ্ট কার্বন নিঃসরণের সবচেয়ে বড় উত্স হলো কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র। হেজেলউডে বিদ্যুৎ উৎপাদনে ব্যবহূত লিগনাইট বা নিম্নমানের ব্রাউন কোল সর্বোচ্চ মাত্রার কার্বন নিঃসরণ করে। কয়েক দশক ধরে অস্ট্রেলিয়ায় সর্বোচ্চ দূষণ উদিগরণের পর অবশেষে আগামী বছরের মার্চ মাস থেকে কার্যক্রম বন্ধ করবে হেজেলউড। বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রটি বর্তমানে আর ফলপ্রসূ নয় বিধায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। হেজেলউডের ৭২ শতাংশের মালিক ফরাসি জ্বালানি কোম্পানি এঞ্জি ও ২৮ শতাংশের মালিক জাপানি ট্রেডিং হাউজ মিত্সুই।

হেজেলউড পুরো অস্ট্রেলিয়ার ৪ শতাংশ ও ভিক্টোরিয়া রাজ্যের ২২ শতাংশ বিদ্যুৎ চাহিদা পূরণ করে। এঞ্জির অস্ট্রেলিয়া শাখার প্রধান নির্বাহী অ্যালেক্স কেইজার এক বিবৃতিতে জানান, গত পঞ্চাশ বছরেরও বেশি সময় ধরে হেজেলউড অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় বিদ্যুৎ বাজারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এসেছে। দেশটির বিদ্যুৎ সরবরাহে যথেষ্ট অবদান রাখলেও এখন তা এমন একটি পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, এর কাজ পরিচালনা করা এঞ্জির জন্য আর লাভজনক নয়।

তিনি আরো বলেন, টেকসই ও নিরাপদ উপায়ে উৎপাদন কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে এঞ্জিকে হেজেলউডে লাখ লাখ ডলার বিনিয়োগ করতে হবে। বর্তমান ও পূর্বাভাসকৃত বাজার পরিস্থিতিতে এত বিপুল পরিমাণ অর্থ বিনিয়োগ সমর্থনযোগ্য নয়। হেজেলউড ছাড়াও ব্রাউন কোলভিত্তিক অন্যান্য বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রও বিক্রির কথা ভাবছে এঞ্জি।