দাড়ি রাখা যাবে না ভারতীয় বিমান বাহিনীতে

base_1481792430-a11

ভারতের বিমান বাহিনীর কোনো সেনা দাড়ি রাখতে পারবে না বলে রায় দিয়েছে দেশটির সুপ্রিমকোর্ট। ধর্ম ও বর্ণভেদে সবার ক্ষেত্রেই এই বিধান প্রযোজ্য হবে বলেও রায়ে জানানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভারতের প্রধান বিচারপতি টিএস ঠাকুর রায়টি দেন।

এর আগে ভারতীয় বিমান বাহিনীর এক মুসলিম সদস্য আনসারি আফতাব আহমেদ দাড়ি রাখার অনুমতি চেয়ে সুপ্রিমকোর্টের দ্বারস্থ হন। দাড়ি রাখার কারণে ২০০৮ সালে বিমান বাহিনী থেকে তাকে অব্যাহতি দেয়া হয়। পরে তিনি সুপ্রিমকোর্টে রিট করেন।

মামলায় বলা হয়, শিখ ধর্মাবলম্বী সেনাদের যদি দাড়ি রাখার অনুমতি থাকে তাহলে মুসলিম ধর্মের সেনাদেরও দাড়ি রাখার অনুমতি দেয়া হোক। ২০০৮ সালে একই কারণে আরো দুই জন আদালতের দ্বারস্থ হন।

আনসারি আফতাব আহমেদের মামলার রায়ে সুপ্রিমকোর্টের ভাষ্য, ‘সব মুসলিমই দাড়ি রাখেন না। ইসলামে এটা ঐচ্ছিক একটি কাজ এবং কাজটি সর্বজনীনভাবে স্বীকৃত না। এছাড়া ইসলাম ধর্মে চুল কাটা এবং দাড়ি কামিয়ে ফেলা নিষিদ্ধ করা হয়েছে এমনটাও বলা যায় না।’

২০০৮ সালের শেষের দিকে ভারতের তৎকালীন ইউপিএ সরকারের প্রতিরক্ষামন্ত্রী এ কে অ্যান্টনি জানিয়েছিলেন, মুসলিমরা কোনো কারণে বঞ্চিত হোক এটা তারা চান না। পরে অবশ্য বিষয়টি নিয়ে নতুন করে ভেবে দেখার জন্য আদালতের কাছে সময় চায় সরকার। বৃহস্পতিবার সেই মামলারই রায় দেয়া হলো।

সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস