রুশ-তুর্কি সম্পর্ক ব্যাহত করতেই রাষ্ট্রদূত হত্যা: পুতিন

russia-turkey

রাশিয়া এবং তুরস্কের মধ্যকার সম্পর্কে ব্যাঘাত ঘটাতেই আঙ্কারায় রুশ রাষ্ট্রদূত আন্দ্রে কারলভকে হত্যা করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

তিনি বলেন, ইরান এবং তুরস্ককে সঙ্গে নিয়ে সিরিয়া সঙ্কট নিরসনে মস্কোর চেষ্টা বাধাগ্রস্ত করতেই ওই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটানো হয়েছে। এ বিষয়ে রুশ তদন্তকারীরা অনুসন্ধান শুরু করেছে বলেও জানান রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট।

ক্রেমলিনে এক বিশেষ বৈঠকে এসব কথা বলেন পুতিন। বিশ্বের সব দেশের রুশ দূতাবাসে নিরাপত্তা বাড়ানোরও নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি। পুতিন জানান, কার নির্দেশে ওই অস্ত্রধারী কাজ করেছিল তা তিনি জানতে চান।

হত্যাকাণ্ড বিষয়ে তুরস্কের প্রতিক্রিয়া গঠনমূলক হবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘একটি অপরাধ সংঘটিত হয়েছে। কোনো সন্দেহ নেই যে রুশ-তুরস্ক সম্পর্ককে স্বাভাবিক করার প্রচেষ্টা ব্যাহত করার উস্কানি হিসেবে এবং সিরিয়া শান্তি প্রক্রিয়ায় ব্যাঘাত ঘটাতেই কাজটি করা করা হয়েছে।’

এর আগে সোমবার (১৯ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় তুরস্কে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আন্দ্রে কারলভকে আঙ্কারার একটি আর্ট গ্যালারিতে গুলি করে হত্যা করা হয়। এসময় ‘তুর্কিদের চোখে রাশিয়া’ শিরোনামে আয়োজিত একটি প্রদর্শনীতে বক্তব্য দিচ্ছিলেন তিনি।

ওই হত্যাকাণ্ডের পরপরই রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে ফোন দেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। হত্যাকাণ্ড বিষয়ে তুরস্কের কঠোর অবস্থানের কথা জানান তিনি।

এদিকে হত্যাকারীর নাম মেভলুট মার্ট আলটিনটাস বলে জানিয়েছে তুরস্ক। ২২ বছরের এই যুবক এক সময় দেশটির পুলিশ বাহিনীতে কর্মরত ছিলেন।

সূত্র: দি ইন্ডিপেনডেন্ট