২০১৭ সালে ইপিএস স্পেশাল সিবিটি অনুষ্ঠিত হবে না

২০১৭ সালে কোন স্পেশাল সিবিটি অনুষ্ঠিত হবে না। মূলত কমিটেড ওয়ার্কার বেড়ে যাওয়ার কারণেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশে এইচআরডি কোরিয়ার ম্যানেজার মোহাম্মদ শামশুল আলম।

তিনি ফেসবুক স্ট্যাটাসে এই কথা জানান। পাঠকদের সুবিধার্তে তার ফেসবুক স্ট্যাটাস হুবহু তুলে ধরা হলো।

“কয়েকদিন আগে ইপিএস এর সম্ভাব্য দুটি পরিবর্তন এর কথা বলেছিলাম। তার মধ্যে একটা বলার সময় হয়েছে। আর একটা এখনো সময় হয়নি।
যেটা বলার সময় হয়েছে সেটা হলো ২০১৭সালে ১৬টি দেশের কোথাও স্পেশাল সিবিটি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে না। ২০১৮থেকে পুনরায় পরীক্ষার নেয়ার পরিকল্পনা আছে।

স্পেশাল সিবিটি ও কমিটেড ওয়ার্কারের অভিন্ন কৌটা রাখা হয়। ২০১৬সালে স্পেশাল সিবিটির রোস্টারভুক্তদের কারনে অনেক দেশেই কমিটেড ওয়ার্কার এর কোরিয়া প্রবেশে সমস্যা হয়েছে। কমিটেড ওয়ার্কাগণ যেহেতু শ্রম চুক্তি করেই দেশে আসে, তাদের যেতে সমস্যা হলে মালিক পক্ষ থেকে বিভিন্ন অভিযোগ আসে। ২০১৭সালে সম্ভাব্য কমিটেড ওয়ার্কারের পরিমান এতই বেশি যে স্পেশাল সিবিটিকে সাময়িক স্থগিত রাখতে হচ্ছে”।

স্পেশাল সিবিটি কি?

যে সব ইপিএস কর্মী নির্ধারিত ৪ বছর ১০ মাস শেষ করে নিজ দেশে ফেরত যান তারা  দ্বিতীয় দফায় বয়স সীমার (৩৯বছর) মধ্যে থাকলে আবারো  স্পেশাল সিবিটি সুবিধার আওতায় কোরিয়ায় আসার সুযোগ পান। অর্থাৎ বয়স ৩৯বছর পূর্ণ হয়ে ৪০বছরে পা দেয়ার আগ পর্যন্ত কোরিয়া থেকে এসে স্পেশাল সিবিটি দিয়ে বার বার কোরিয়া আসার সুযোগ পাবেন।