অস্ট্রেলিয়ায় স্কলারশিপ

utsঅস্ট্রেলিয়ার ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি ইন সিডনি (ইউটিএস)-তে পড়তে আগ্রহী বাংলাদেশের উচ্চ মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীরা এখন আকর্ষণীয় একটি স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবে। নতুন এই ইউটিএস:ইনসার্চ এসপায়ার স্কলারশিপটিতে বাংলাদেশ ও উপমহাদেশের মেধাবী শিক্ষার্থীদেরকে মোট ৩.৫ মিলিয়ন অস্ট্রেলিয়ান ডলার (বাংলাদেশি টাকায় ২১ কোটি টাকা) প্রদান করা হবে, যা ইউটিএস:ইনসার্চ-এ তাদের দ্বিতীয় সেমিস্টারের ফি হিসেবে ব্যবহার করা হবে৷

সম্প্রতি ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি ইন সিডনি (ইউটিএস) টাইমস হাইয়ার এডুকেশন-এর নবীন ইউনিভার্সিটি র‍্যাংকিংয়ে অস্ট্রেলিয়াতে টানা তৃতীয়বারের মতো শীর্ষ নবীন ইউনিভার্সিটির স্বীকৃতি পেয়েছে এবং বিশ্ব র‌্যাংকিংয়ে ছয় ধাপ এগিয়ে ১৫তম হয়েছে।

ইউটিএস এ অধ্যয়ন এবং সেরা পারফর্ম করার জন্য শিক্ষার্থীদের তৈরি করতে ইউটিএস:ইনসার্চ মাধ্যম হিসেবে কাজ করে। ইউটিএস:ইনসার্চ এ সফলভাবে ডিপ্লোমা শেষ করার পর, শিক্ষার্থীরা সরাসরি ইউটিএস এর স্নাতকে ভর্তি হতে পারে এবং পছন্দকৃত কোর্সের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীরা খুব দ্রুত বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষে পদার্পণ করতে পারে।

ইউটিএস:ইনসার্চ এর চিফ মার্কেট ডেভেলপমেন্ট অফিসার বেলিন্ডা হওয়েল বলেন, ‘আমরা জানি বাংলাদেশের অনেক শিক্ষার্থীই ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি ইন সিডনি-এর উন্নত শিক্ষাপদ্ধতির অধীনে পড়াশুনা করতে আগ্রহী। নিয়োগকারী ও শিল্পের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের জোরালো সহযোগিতা আকর্ষণীয় ও সফল ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ বৃদ্ধি করে।’

হওয়েল আরো বলেন, ‘বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের ক্যারিয়ারের স্বপ্ন পূরণ করতে এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায় সহ পরবর্তীতে সফলতা অর্জনের জন্য প্রস্তুত হওয়ার ক্ষেত্রে সহযোগিতা করতে এই এসপায়ার স্কলারশিপ প্রোগ্রাম অফার করতে পেরে আমরা আনন্দিত।’

ইউনেস্কোর গ্লোব্যাল ফ্লো অব টার্শিয়ারি-লেভেল-স্টুডেন্টস এর তথ্য অনুযায়ী, বিদেশে পড়াশুনার ক্ষেত্রে অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের চতুর্থ শীর্ষ পছন্দের গন্তব্য, যার অবস্থান জার্মানি ও কানাডার উপরে৷

ইউটিএস-এ সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে অধ্যয়নরত খুলনার শিক্ষার্থী হামজা বিন মনজুর সবার সঙ্গে তার অস্ট্রেলিয়ায় পড়াশুনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন৷ তিনি বলেন, ‘প্রকৌশল বিদ্যা নিয়ে পড়াশুনার জন্য বর্তমানে ইউটিএস হলো সর্বোৎকৃষ্ট জায়গা। এটি আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের পছন্দের জায়গা হিসেবে পরিচিত। এছাড়াও, আমি সিডনির কাছাকাছি একটা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনা করতে চেয়েছিলাম।’

মনজুর ২০১৬ সালে ইউটিএস:ইনসার্চ থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং এ ডিপ্লোমা শেষ করেছেন এবং বর্তমানে ইউটিএসে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে স্নাতকে অধ্যয়নরত আছেন।

এসপায়ার স্কলারশিপ প্রোগ্রামে আবেদনের নিয়মাবলি: উপমহাদেশের যেসব নতুন শিক্ষার্থী ২০১৭ থেকে ২০২০ সালের মধ্যে ইউটিএস:ইনসার্চ এ ডিপ্লোমা শুরু করবে তারাই এই স্কলারশিপ প্রোগ্রামে আবেদন করতে পারবে।

স্কলারশিপ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিত করুন: www.insearch.edu.au/how-to-apply/scholarships/aspire অথবা www.insearch.edu.au/aspire

আরো পড়তে পারেন: অস্ট্রেলিয়ায় উচ্চ শিক্ষা ও বৃত্তির টুকিটাকি