রেমিট্যান্স প্রবাহে আশঙ্কাজনক অবনতি

remittance-dropরেমিট্যান্স প্রবাহে সাম্প্রতিকে সময়ে আশঙ্কাজনক অবনতি ঘটেছে। গত মে মাস থেকেই এই প্রবাহ নিম্নমুখী। জুন মাসের চেয়ে জুলাই মাসে রেমিট্যান্স প্রবাহ কমেছে সোয়া ৮ শতাংশ। যেখানে মে মাসের তুলনায় জুনে কমেছিল ৪ দশমিক ১৭ শতাংশ। রেমিট্যান্স নির্ভর গ্রামীণ পরিবারগুলোর আয়ের একটি বড় অংশ ভোগ্য, স্বাস্থ্য ও শিক্ষা খাতে ব্যয় হয়। এতে ক্রমহ্রাসমান রেমিট্যান্স প্রবাহ গ্রামীণ অর্থনীতিতে আর্থিক ঝুঁকি সৃষ্টির মাধ্যমে মানব উন্নয়ন প্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করতে পারে বলে মনে করছেন গবেষণা প্রতিষ্ঠান উন্নয়ন অন্বেষণের চেয়ারম্যান ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. রাশেদ আল তিতুমীর।

গবেষণা প্রতিষ্ঠানটির দেয়া অথ্যানুযায়ী, ২০১৫-১৬ অর্থবছরের তুলনায় ২০১৬-১৭ অর্থবছরে রেমিট্যান্স প্রবাহ ১৪ দশমিক ৪৮ শতাংশ হ্রাস পেয়ে ১ হাজার ২৭৬ কোটি ৯০ লাখ মার্কিন ডলারে দাঁড়িয়েছে। অন্য দিকে মাসিক ভিত্তিতে রেমিট্যান্স প্রবাহ চলতি বছরের মে মাসের তুলনায় জুনে ৪ দশমিক ১৮ শতাংশ কমে ১২১ কোটি ৪৬ লাখ ১০ হাজার মার্কিন ডলার হয়েছে। আর জুনের তুলনায় ৮ দশমিক ১৫ শতাংশ হ্রাস পেয়ে গত জুলাই মাসে এই রেমিট্যান্স ১১১ কোটি ৫৫ লাখ ৭০ হাজার মার্কিন ডলারে দাঁড়িয়েছে।

একইভাবে রফতানি আয়ের প্রবৃদ্ধিও কমেছে। ২০১৫-১৬ অর্থবছরের তুলনায় ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ৮.০৮ শতাংশ পয়েন্ট হ্রাস পায়। গত ২০১৫-১৬ অর্থবছর মোট রফতানি আয়ের প্রবৃদ্ধি ৯ দশমিক ৭৭ শতাংশ ছিল। ২০১৬-১৭ অর্থবছর শেষে সেই প্রবৃদ্ধি কমে ১ দশমিক ৬৯ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। গত অর্থবছরে রফতানি আয়ের ল্যমাত্রা ৩ হাজার ৭০০ কোটি মার্কিন ডলার থেকে ২১৬ কোটি ৫০ লাখ ডলার কম অর্জিত হয়। তৈরী পোশাক রফতানি নির্ভরতার পাশাপাশি বাজার সম্প্রসারণের ও রফতানি পণ্যে বিচিত্রতার অভাব বহিঃখাতের সার্বিক কর্মদতাকে চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন করতে পারে। অন্য দিকে নিট বৈদেশিক সাহায্যের পরিমাণ ২০১৫-১৬ অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ২০১৬-১৭ অর্থবছরের জুলাই-মে সময়ে ১১ দশমিক ১৬ শতাংশ হ্রাস পেয়ে ১৮৯ কোটি ৬১ লাখ ৬০ হাজার মার্কিন ডলার দাঁড়িয়েছে।

পর্যালোচনায় দেখা গেছে, সাম্প্রতিক সময়ে শিল্প কাঁচামাল আমদানির জন্য নতুন প্রত্যয়পত্র (লেটার অফ ক্রেডিট) বা এলসি খোলার হার বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০১৫-১৬ অর্থবছরের জুলাই-মে মাসের তুলনায় ২০১৬-১৭ অর্থবছরের একই সময়ে শিল্প কাঁচামাল আমদানির জন্য নতুন এলসি খোলার হার ৬ দশমিক ১১ শতাংশ বৃদ্ধি পায়, যা শিল্প খাতে কর্মোদ্যমকে নির্দেশ করে। কিন্তু উপযুক্ত ব্যবসায়িক পরিবেশের ফলে সৃষ্ট উদ্যোক্তা উন্নয়নে বাধা ও অর্থনীতিতে উৎপাদন সমতার ঘাটতি এই কর্মোদ্যমকে ব্যাহত করতে পারে, যা বেকারত্ব ও বেসরকারি বিনিয়োগে চলমান স্থবিরতাকে দীর্ঘায়িত করতে পারে বলে ‘উন্নয়ন অন্বেষণ’ সতর্ক করে।

ড. রাশেদ আল তিতুমীরের বিশ্লেষণ হলো রেমিট্যান্স প্রবাহ হ্রাসের ফলে গ্রামীণ অর্থনীতি বিশেষ করে সামাজিক অবকাঠামো উন্নয়ন চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হতে পারে। তার মতে, ২০১৫-১৬ অর্থবছরের জুলাই-মে মাসের তুলনায় গত ২০১৬-১৭ অর্থবছরের একই সময়ে শিল্প কাঁচামাল আমদানির জন্য নতুন এলসি খোলার হার বেড়েছে; যা শিল্প খাতে কর্মোদ্যমকে নির্দেশ করে। কিন্তু উপযুক্ত ব্যবসায়িক পরিবেশের ফলে সৃষ্ট উদ্যোক্তা উন্নয়নে বাধা ও অর্থনীতিতে উৎপাদন সমতার ঘাটতি এই কর্মোদ্যমকে ব্যাহত করতে পারে।