সমালোচনার জবাব দিলেন অনন্ত জলিল

Ananta-jolilচলচ্চিত্র অভিনেতা ও ব্যবসায়ী অনন্ত জলিল বরাবরই আলোচনায় থাকেন। তার সব কর্মকাণ্ড নিয়েই আগ্রহের শেষ নেই মানুষের। সম্প্রতি তিনি ধর্মীয় কাজে মনোনিবেশ করেছেন। দেশের বিভিন্ন প্রান্তের মসজিদ ঘুরে বেড়াচ্ছেন তাবলিগ জামাতের সঙ্গী হয়ে।

এ নিয়েও আলোচনা ও সমালোচনা দুই-ই হচ্ছে। গতকাল শনিবার রাতে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে একটি ধর্মীয় কিতাব পড়া অবস্থায় তোলা ছবি শেয়ার করেন অনন্ত। এরপর সেই ছবিটি বলা চলে ভাইরাল হয়ে গেছে সবখানে। তবে সমালোচনাই বেশিরভাগ। সবাই বলছেন, অনন্ত ধর্ম নিয়ে ব্যবসা করছেন।

তিনি ধর্মীয় কাজগুলো করছেন প্রচারের জন্যই। কেউ কেউ কিতাবের বিজ্ঞাপন করছেন অনন্ত, এমন দাবিও করেছেন। সৈয়দ নজরুল ইসলাম সাইমুন নামে এক ফেসবুক ব্যবহারকারী মন্তব্য করেন, ‘কত দেখানো রং তামাশা দেখবো কালে কালে। ধর্ম একটা ভাবগাম্ভীর্যের বিষয়, সস্তা কিছু নয় তোমরা যেভাবে লোক দেখানো সস্তা বানাচ্ছো। ধর্মচর্চা সিনেমার শুটিং নয়রে পাগলা।’

তবে আজ রোববার (২০ আগস্ট) নিজের ফেসবুকে এক স্ট্যাটাস দিয়ে অনন্ত জলিল জানান, এমন কিছুই নয়। তিনি কোনো বিজ্ঞাপন করছেন না। নিজের মতো করেই ধর্ম কর্ম করছেন।

অনন্ত লেখেন, ‌‘বন্ধুগণ, আমি কোনো কিতাবের কমার্শিয়াল বিজ্ঞাপন করছি না। ফাযায়েলে আমাল কিতাব পড়ার সময় ছবিটি তোলা হয়, যার কারণে কিতাবসহ আমার ছবিটি প্রকাশ পায়। আমি কিতাব পড়ে জ্ঞান অর্জনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। আল্লাহতায়ালাই ভালো জানেন কোনটা সঠিক আর কোনটা সঠিক নয়। সঠিক আমলের জন্য আল্লাহতায়ালার কাছে সবসময় দোয়া করতে থাকি।’

তিনি আরও লেখেন, ‘বন্ধুগণ আমার জন্য দোয়া করবেন। আপনাদের দোয়া এবং আল্লাহর রহমতে আমি যেন ইসলাম দাওয়াত ও তাবলিগ এর কাজ করতে সক্ষম হই। বন্ধুগণ আমি আজ মুন্তাখাব হাদিস পড়ছি, আল্লাহতালা যেন আমাকে সঠিক জ্ঞান অর্জন করার তৌফিক দান করেন।’

গেল বুধবার এক ভিডিও বার্তায় অনন্ত জানান, ১৮ আগস্ট থেকে নারায়ণগঞ্জের একটি মসজিদে তিনদিনের জন্য তাবলিগে যাচ্ছেন। সেখানে তিনি আজ রোববার পর্যন্ত অবস্থান করবেন। জানা গেছে, অনন্ত জলিল আসছেন এই খবর পেয়ে নারায়ণগঞ্জের ওই মসজিদে মানুষের ভিড় লেগে যায়। সবাই অনন্ত জলিলের মুখ থেকে ধর্মীয় কথাবার্তা শুনে মুগ্ধও হয়েছেন।

তেমনি তানভীর বাবু নামের একজন অনন্ত’র ফেসবুকে কমেন্টস করেছেন, ‘অনন্ত ভাই, মাগরিবের নামাজের পড় আপনার কথা শুনে খুব ভালো লাগল। আপনার কথায় কোনো রকম অহংকার-হিংসা পেলাম না। আল্লাহ যেন আপনার ঈমান আরও মজবুত করে।’

প্রসঙ্গত, ২০১০ সালে ঢাকাই ছবিতে পা রাখেন অনন্ত জলিল। তার অভিনীত ছবি হলো- খোঁজ দ্য সার্চ, হৃদয় ভাঙা ঢেউ, দ্য স্পিড, মোস্ট ওয়েলকাম, মোস্ট ওয়েলকাম টু ও নিঃস্বার্থ ভালোবাসা। এছাড়া বছর দুয়েক আগে দ্য স্পাই ও সৈনিক নামের দুটি ছবি নির্মাণের ঘোষণা দেন। আগামী অক্টোবরে দ্বিতীয় বারের মতো বাবা হতে যাচ্ছেন অনন্ত জলিল।