কোরিয়ার সাথে বড় হারের ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে চান কৃষ্ণারা

bangladesh-women-footballবিশ্ব চ্যাম্পিয়ন উত্তর কোরিয়ার কাছে ৯-০ গোলের হারের ধাক্কাটা কাটিয়ে উঠতে চান বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৬ নারী ফুটবল দল। রোববার কোরিয়ানদের কাছে বড় হারের স্মৃতি আর মাথায় রাখতে চান না কিশোরী ফুটবলাররা। ঢাকায় বাছাইপর্বে প্রতিপক্ষের জালে ভুরিভুরি গোল দেয়া মেয়েরা মুদ্রার অন্য পিঠটাও দেখেছেন থাইল্যান্ডের চুনবুরিতে। এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ নারী ফুটবল বাংলাদেশের মেয়েদের কাছে নতুন এক অভিজ্ঞতা।

কৃষ্ণা, সানজিদা, স্বপ্নারা জানতেন উত্তর কোরিয়াকে সামলানো সম্ভব নয় তাদের পক্ষে। তারপরও ৯ গোলের হারে কারো মনই ভালো থাকার কথা নয়। এশিয়ার শীর্ষ পর্যায়ে অভিষেকটা তেতো হয়েই থাকলো তাদের। ম্যাচের পর মুখেই নেমেছিল অন্ধকার।

আসলে চাপেই ভেঙ্গে পড়েছিল কৃষ্ণারা। ম্যাচের পর কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন বাস্তবতার কথাই বলেছেন বারবার, ‘আমরা খেলেছি বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের সঙ্গে। কোরিয়ার বিপক্ষে খেলতে হবে ভেবে চাপে ছিল মেয়েরা। আসল জায়গায় এসে চাপ নিতে পারেনি। এ জন্যই ব্যবধানটা বড় হয়েছে। তাছাড়া আমাদের কিছু খেলোয়াড় স্বাভাবিক খেলা খেলতে পারেনি। আমাদের গোলরক্ষকও হাস্যকর কিছু ভুল করেছে। তা না হলে গোলের বোঝা এত বড় হতো না।’

হতাশা কাটিয়ে এশিয়ার আরেক পরাশক্তি জাপানের বিপক্ষে বৃহস্পতিবার লড়াইয়ের প্রস্তুতি শুরু করেছেন ফুটবলাররা। জাপানের বিপক্ষে ম্যাচের আগে দু’দিনের বিরতিতে উদ্যম ফিরে পেতে চান কৃষ্ণারা। দ্বিতীয় ম্যাচ প্রসঙ্গে কোচ ছোটন বলেছেন,‘জাপানও এখানে ফেভারিট। তাদের বিপক্ষে মেয়েরা সেরা খেলাটা খেলতে শারীরিক-মানসিকভাবে তৈরি আছে।’

একই দিনে গ্রুপের অন্য ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে ৫-০ গোলে হারিয়ে বুঝিয়ে দিয়েছে তাদের শক্তিটা। জাপানিদের গোল বাড়িয়ে নেয়ার নেশায় কতটা পুড়বেন বাংলাদেশের কিশোরীরা সেটাই এখন দেখার।