ঢাকা দক্ষিণ সিটির প্রকল্পে সহযোগিতা দিতে চায় দক্ষিণ কোরিয়া

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) নেওয়া নানা প্রকল্পে সহযোগিতা দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে দক্ষিণ কোরিয়া। ঢাকায় নিযুক্ত দেশটির রাষ্ট্রদূত লি জ্যাং কিউন এ আগ্রহের কথা জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) বিকেলে নগর ভবনে ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে তিনি এ আগ্রহ ব্যক্ত করেন।
এসময় মেয়র তাপস কোরিয়ার রাষ্ট্রদূতকে দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নেওয়া নানা উদ্যোগ ও প্রকল্প সম্পর্কে অবগত করলে রাষ্ট্রদূত এসব প্রকল্পে তার দেশের সহযোগিতা দেওয়ার কথা জানান।

লি জ্যাং কিউন বলেন, বাংলাদেশের ক্ষেত্রে সব উন্নয়ন প্রকল্প ইআরডি হয়ে বিভিন্ন উন্নয়ন সহযোগী ও অর্থায়নকারী এজেন্সির কাছে যায়। এক্ষেত্রে কোরিয়ান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সি (কোইকা) ও ইকোনমিক ডেভেলপমেন্ট কো-অপারেশন ফান্ড (ইডিসিএফ) অর্থায়ন করতে পারে। এ ধরনের কোনো প্রস্তাব সরকারের কাছ থেকে আমাদের কাছে গেলে আমরা তা দ্রুততার সঙ্গে ও যথাযথ গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করবো।এসময় রাষ্ট্রদূত ডিএসসিসি মেয়র শেখ তাপসকে বাংলাদেশ-কোরিয়ার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের ৫০ বছর পূর্তিতে নেওয়া বিভিন্ন উদ্যোগ বিষয়ে জানান।
মেয়র তাপস বলেন, কোরিয়া বাংলাদেশ সম্পর্ক খুবই সুদৃঢ় ও সময়ের পরিক্রমায় পরীক্ষিত। কোরিয়া বাংলাদেশের অন্যতম উন্নয়ন সহযোগী। দুদেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর পূর্তিকে অনন্য মাত্রা দিতে আমরা একসঙ্গে কাজ করে যাবো।
রাষ্ট্রদূত দক্ষিণ সিটির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দক্ষতা বাড়াতে নানা রকম প্রশিক্ষণ দেওয়ার ক্ষেত্রেও তার দেশের সহযোগিতার প্রস্তাব দেন। এছাড়া বাংলাদেশ-কোরিয়া সংস্কৃতি বিনিময়ের মাধ্যমে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক ও পারস্পরিক সহযোগিতার ভিত্তি আরও মজবুত করতে একযোগে কাজ করার বিষয়ে দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

এসময় অন্যদের মধ্যে দক্ষিণ সিটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান ও ঢাকায় কোরিয়ার ফার্স্ট সেক্রেটারি লি জাংইয়ল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।