মধ্যরাতে ঢাবির হলে হলে ছাত্রলীগের হামলা: ছাত্রীর পায়ের রগ কর্তন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কয়েকটি হলে মঙ্গলবার গভীর রাতে কোটা সংস্কার পক্ষের শিক্ষার্থীদের মারধর করেছে ছাত্রলীগের ক্যাডাররা। বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম সুফিয়া কামাল হল, সূর্যসেন হল, বেগম রোকেয়া হল, স্যার এফ রহমান হলের সাধারণ শিক্ষার্থীরা মারধরের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

esha
ছাত্রীর পায়ের রগ কেটে দেয়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কবি সুফিয়া কামাল হল শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি ইফফাত জাহান এশা

সাধারণ শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, হল ছাত্রলীগের সভাপতি ইসরাত জাহান এশার ৩০৭ নম্বর রুমে মারধর চলছে। হলের এক শিক্ষার্থীর পায়ের রগ কেটে দিয়েছে বলেও অভিযোগ রয়েছে। অপর একজনের মাথায় সেলাই দেয়া হয়েছে। হলের দুই ছাত্রীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে হামলার প্রতিবাদে হল ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদককে হল থেকে বের করে দেয়ার দাবিতে বিক্ষোভ করছে। নতুবা হলের সব মেয়ে বের হয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। রোকেয়া হলেও মেয়েদের টর্চার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোকেয়া ও শামসুন্নাহার হলের মেয়েরা বাইরে বেরিয়ে এসেছেন। জিয়া হলের ১ম ও ২য় বর্ষের ছাত্ররাও বাইরে এসে বিক্ষোভ করছেন।

sentbe BT

এছাড়া স্যার এ এফ রহমান হল, হাজী মুহাম্মাদ মহসিন হল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল, জহুরুল হক, এসএম হল, ফজিলাতুন্নেসা মুজিব হলে হল থেকে শিক্ষাথীদের বের করে দেয়ার হুমকি ও হেনস্তার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এছাড়া সন্ধ্যার পর থেকে বিভিন্ন হলে ছাত্রলীগ বর্ধিত সভা করে নিজেদের কর্মীদের ধমক দিয়েছে যেন আন্দোলনে না যায়। এছাড়াও সাধারণ ছাত্রছাত্রীদদের ভয় দেখানো হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

acctact

শিক্ষার্থীরা জানান, সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের সভাপতি সোহানুর রহমান নেতাকর্মীদের হুমকি দিয়েছেন। এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স অভিযোগ অস্বীকার করে বলছেন, কারা অরাজকতা করছে জানি না। প্রশাসনকে ব্যবস্থা নিতে বলেছি।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, বিষয়টি আমরা শুনেছি। শিক্ষকদের পাঠানো হয়েছে। প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী বলেন, আমাদের শিক্ষকরা সেখানে গেছেন। দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।