cosmetics-ad

বাজেট পাসের আগেই মোবাইল গ্রাহকদের অতিরিক্ত টাকা কাটা শুরু

mobile

বাজেটে মোবাইল ফোনের সেবায় ৫ শতাংশ শুল্ক আরোপের প্রস্তাবের পর বাজেট পাসের আগেই গ্রাহকদের কাছ থেকে সেই হারে খরচ আদায় করা শুরু করেছে মোবাইল ফোন অপারেটররা।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের এসআরও হাতে পাওয়ার পরপরই নতুন ট্যারিফ প্ল্যানের সিস্টেম আপগ্রেড শুরু করে অপারেটররা। বাজেটে সম্পূরক শুল্কের ঘোষণার পর সেদিনই এ বিষয়ে এসআরও জারি করা হয় বলে জানিয়েছে অপারেটররা।

মোবাইল অপারেটররা জানিয়েছে, কোন গ্রাহক এসএমএস পাওয়া মানেই হচ্ছে সে নতুন ট্যারিফ প্ল্যানে অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন। শুক্রবার থেকেই অপারেটররা এই এসএমএস দেওয়া শুরু করেছে।

গ্রামীণফোনের হেড অফ এক্সটার্নাল কমিউনিকেশনস সৈয়দ তালাত কামাল বলেন, “এ ব্যাপারে আমরা গ্রাহকদের এসএমএস দেওয়া শুরু করেছি। মূলত বাজেট ঘোষণার পর থেকেই এ বিষয়ে কাজ শুরু করা হয়।”

মোবাইল অপারেটররা গ্রাহকদের এসএমএস করে বলেছে, “মোবাইল ফোন ব্যবহারে ৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা হয়েছে সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, যা আপনাদের সকল ধরনের মোবাইল ব্যবহারের উপর প্রযোজ্য হবে।”

এ ব্যাপারে রবির কমিউনিকেশনস ও করপোরেট রেসপনসিবিলিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট ইকরাম কবির বলেন, “আমাদের কাছে এসআরও আসার পরই এ প্রক্রিয়া শুরু করেছি এবং গ্রাহকদের এসএমএসের মাধ্যমে জানানো হচ্ছে। এসএমএস পাওয়া মানেই গ্রাহক নতুন সিস্টেমে অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন।”

মোবাইল ফোনের সেবায় ৫ শতাংশ শুল্ক দিতে পারবে সেই বিশ্বাস থেকেই বাজেটে এ প্রস্তাব করা হয়েছে বলে শুক্রবার বাজেটোত্তর সাংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

মোবাইল ফোনের সেবায় ৫ শতাংশ শুল্ক আরোপের যুক্তি হিসেবে তিনি বলেন, “ মোবাইল টক টাইমের উপর একটি কর ধার্য্য করেছি, এটা শুধু বাংলাদেশে নয় বিভিন্ন দেশে হয়, আমাদের এই সেক্টরে অনেক গ্রোথ, আমার মনে হয় এটা তারা দিতে পারবেন। সেই বিশ্বাসেই করেছি।”

বিটিআরসির হিসাবে, গত এপ্রিল মাস নাগাদ বাংলাদেশে মোবাইল ফোন গ্রাহকের সংখ্যা ১২ কোটি ৪৭ লাখের বেশি। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ৪ কোটি ৪২ লাখের বেশি।