cosmetics-ad

যুক্তরাষ্ট্রে ছাঁটাই আতঙ্কে এইচওয়ানবি ভিসাধারীরা

us-visa

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবসায় নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে। এর ফলে সবচেয়ে মুশকিলে পড়েছে দেশটিতে প্রযুক্তি পেশার সঙ্গে যুক্ত এইচওয়ানবি ভিসাধারীরা। আর এদের মধ্যে বেশিরভাগ ভারতীয়রা তাদের চাকরি হারানোর আশঙ্কায় রয়েছেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চাকরি হারানোর পর নিয়ম অনুযায়ী যুক্তরাষ্ট্রে সর্বোচ্চ ৬০ দিন থাকা যায়। তাই প্রশাসনের কাছে তারা দাবি জানিয়েছে, এই সময়সীমা বাড়িয়ে ১৮০ দিন করা হোক।

এইচওয়ানবি ভিসা হলো এমন এক ধরনের ভিসা যা যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানিগুলোতে প্রযুক্তিগত পারদর্শীদের বা বিদেশি কর্মীদের কাজ করার অনুমতি দেয়। এই প্রযুক্তি নির্ভর কোম্পানিগুলো ভারত ও চীনের হাজার হাজার কর্মীদের দক্ষতা ও শ্রমের ওপরই নির্ভর করে।

আর এখন যে ফেডারেল নিয়ম রয়েছে তা অনুযায়ী এইচওয়ানবি ভিসা যাদের কাছে রয়েছে, কাজ হারালে তাদেরকে ৬০ দিনের মধ্যে পরিবার নিয়ে নিজ যুক্তরাষ্ট্র ছাড়তে হবে।

অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, করোনাভাইরাসের কারণে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি যেভাবে প্রভাবিত হচ্ছে, তাতে বিভিন্ন খাতে ব্যাপক ছাঁটাইয়ের আশঙ্কা রয়েছে। আর এটা আগামী সপ্তাহ বা মাসে আরও খারাপের দিকে যাবে।

গত ২১ মার্চ প্রায় ৩০ লাখ ৩০ হাজার আমেরিকান বেকার ভাতার জন্য ইতোমধ্যে আবেদন করে ফেলেছেন। শোনা যাচ্ছে, মাত্র দুই সপ্তাহ আগে লক্ষাধিক মানুষ যুক্তরাষ্ট্রে তাদের চাকরি হারিয়েছেন।

হিসাব অনুযায়ী, প্রায় ৪৭ মিলিয়ন মানুষ বেকার হতে পারেন, যারা এইচওয়ানবি ভিসায় যুক্তরাষ্ট্রে কাজ করছেন। তারা এই বেকার ভাতা পাবেন না। এমনকি সামাজিক সুরক্ষা থেকেও বঞ্চিত থাকেন তারা। তাছাড়া এক্ষেত্রে তাদের বেতন থেকেও টাকা কেটে নেয়া হয়।

প্রাথমিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, অসংখ্য এইচওয়ানবি ভিসাধারী কর্মীদের ছাঁটাই করা হবে। কিছু ক্ষেত্রে শোনা যাচ্ছে, কোম্পানির পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে এইচওয়ানবি ভিসাধারী কর্মীদের জানিয়ে দেয়া হয়েছে যে, ছাঁটাইয়ের তালিকায় সবচেয়ে উপরে তারাই আছেন।

এ রকম পরিস্থিতিতে হোয়াইট হাউসের এইচওয়ানবি ভিসায় কর্মরতরা একটি পিটিশন ক্যাম্পেইন বা আবেদন করেছেন। সেখানে কাজ হারালে যুক্তরাষ্ট্রে থাকার ক্ষেত্রে যে সময়সীমা দেয়া হয়, তা বাড়িয়ে দেয়ার অনুরোধ রাখা হয়েছে। এখন পর্যন্ত প্রায় ২০ হাজার সইস আবেদন জমা পড়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে কর্মরত বেশিরভাগ এইচওয়ানবি ভিসাধারী ভারতীয়। তবে তারাও পরিবার নিয়ে দেশে ফিরতে পারবেন না, কারণ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ভারত ২১ দিনের জন্য লকডাউন। দেশটিতে এখন প্রবেশ নিষিদ্ধ।

আক্রান্তের দিক দিয়ে অন্যান্য দেশকে ছাপিয়ে যাওয়া যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত ১ লাখ ৬৫ হাজার ৪৮২ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। গত একদিনে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৬ হাজারের বেশি মানুষ। দেশটিতে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ১৮৬ জনের। সবচেয়ে বেশি মৃত্যু ও আক্রান্ত নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্যে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিটি অঙ্গরাজ্যেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হচ্ছে প্রতিনিয়ত। তবে হওয়াই এবং উইওমিংয়ে এখনো করোনায় কেউ মারা যায়নি। ট্রাম্প প্রশাসন কর্তৃক গঠিত করোনাভাইরাস মোকাবিলা টাস্কফোর্সের প্রধান বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে অন্তত ১ লাখ মানুষ করোনায় প্রাণ হারাবেন।

সৌজন্যে- জাগো নিউজ