cosmetics-ad

উত্তর কোরিয়ায় ৭০৯ জনের করোনা পরীক্ষা

kim

করোনা মুক্ত বলে উত্তর কোরিয়া দাবি করলেও দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৭০৯ জনের করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। বুধবার ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার উত্তর কোরীয় প্রতিনিধি ডা. এডিউয়িন স্যালভেদর বলেছেন, উত্তর কোরিয়ায় এখন পর্যন্ত ৭০৯ জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ৬৯৮ জন দেশটির নাগরিক এবং ১১ বিদেশি।

বিশ্বজুড়ে করোনার মহামারিতে লাখ লাখ মানুষ আক্রান্ত হলেও আড়াই কোটি মানুষের এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত কোনো রোগী পাওয়া যায়নি। এছাড়া দেশটিতে করোনা পরীক্ষা যে তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জনসংখ্যার তুলনায় সেটিকে একেবারে স্বল্পসংখ্যক বলে মন্তব্য করেছে।

অন্যদিকে, প্রতিবেশি দক্ষিণ কোরিয়ায় করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৪ লাখ ৮৬ হাজার ৩ জনের। উত্তর কোরিয়াবিষয়ক মার্কিন সংবাদমাধ্যম এনকে নিউজের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ওলিভার হোথামও বলেছেন, উত্তর কোরিয়ায় করোনা সংক্রমণের ঘটনা থাকতে পারে।

তিনি বলেন, চীন এবং দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে সীমান্ত থাকা সত্ত্বেও উত্তর কোরিয়ায় করোনা সংক্রমণের ঘটনা না থাকাটা একেবারেই অসম্ভব। বিশেষ করে চীনের সঙ্গে দেশটির বৃহৎ সীমান্ত বাণিজ্য এবং অর্থনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে। তারা এটাকে প্রতিরোধ করতে পারে এমন কোনও সম্ভাবনা আমি দেখছি না।

তবে দেশটিতে এখনও পুরোমাত্রার প্রাদুর্ভাব শুরু হয়নি বলে জানান তিনি। ওলিভার বলেন, আসলে তারা অনেক আগেই পূর্ব-সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। আমি মনে করি, তারা পুরোমাত্রার প্রাদুর্ভাবকে আটকাতে পেরেছে।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনে এই ভাইরাস ধরা পড়ার পর জানুয়ারি মাসেই সব সীমান্ত বন্ধ করে দেয় উত্তর কোরিয়া। পরে রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ে শত শত বিদেশিকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়। ওই সময় চীনে করোনা সংক্রমণের সংখ্যা দ্রুত বাড়তে থাকে।

এনকে নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উত্তর কোরিয়ায় ১০ হাজারের বেশি মানুষকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। এছাড়া কোয়ারেন্টাইনে আছেন আরও প্রায় ৫০০ জন।