Search
Close this search box.
Search
Close this search box.

দীর্ঘ ৪ বছর পর উত্তর কোরিয়াতে বিদেশি পর্যটক

north-koreaকরোনা মহামারির বিধি-নিষেধ উঠে যাওয়ার পর এই প্রথম উত্তর কোরিয়াতে যাচ্ছেন বিদেশি পর্যটকেরা। এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়ার একদল পর্যটক উত্তর কোরিয়াতে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে।

chardike-ad

এই সফরের মধ্য দিয়ে করোনা মহামামারি পর প্রথমবারের মতো দেশটি ভ্রমণের সুযোগ পেতে যাচ্ছেন ওই পর্যটকেরা। রাশিয়ার আঞ্চলিক কর্তৃপক্ষ এক পোস্টে এই তথ্য জানিয়েছে। একটি ওয়েস্টার্ন ট্যুর গাইডের পক্ষ থেকেও বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

করোনা মহামারি শুরু হলে সংক্রমণ ঠেকাতে ২০২০ সালে সীমান্ত বন্ধ করে দেয় উত্তর কোরিয়া। এরপর থেকে দেশটিতে পর্যটকদের প্রবেশ নিষিদ্ধ ছিল। মহামারি ঠেকাতে বিশ্বের যে কয়েকটি দেশ সীমান্তে কঠোর নিয়ন্ত্রণ আরোপ করেছিল তার মধ্যে একটি হলো উত্তর কোরিয়া। মহামারি শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত বিদেশি পর্যটকদের জন্য সীমান্তে খোলা হয়নি।

তার আগে গত ডিসেম্বর মাসে রাশিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশের গভর্নর প্রিমোরস্কি ক্রাই উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ং পরিদর্শন করেন। দুই দেশের কর্মকর্তারা সেসময় এ বিষয়ে আলোচনা করেন বলে জানা গেছে। উল্লেখ্য রাশিয়ার ওই প্রদেশটি উত্তর কোরিয়ার সীমান্ত ঘেঁষা।

জানা গেছে, ৪ দিনের ভ্রমণের লক্ষ্যে পর্যটকেরা ৯ ফেব্রুয়ারি উত্তর কোরিয়া উদ্দেশে যাত্রা করবেন। বেইজিংয়ের বেসরকারি পর্যটন সংস্থা কোরইয়ো ট্যুরসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সিমন কোকেরেল বলেন, উত্তর কোরিয়াতে তার ব্যবসায়িক অংশীদার রাশিয়ার পর্যটকদের ভ্রমণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। একটি বিশেষ পরিস্থিতিতে ভ্রমণের এই আয়োজনটি করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। তার সংস্থাটি অবশ্য রাশিয়ান পর্যটকদের উত্তর কোরিয়া ভ্রমণ আয়োজনের সাথে সংশ্লিষ্ট নয়।

‘এটি একটি ভাল দিক। কিন্তু এরপর থেকে বড় পরিসরে বিদেশি পর্যটকদের জন্য সীমান্ত খুলে দেওয়া হবে, সেটি আমি বলতে পারছি না,’ জানান তিনি।

উল্লেখ্য, করোনা মহামারি শুরুর আগে ২০১৯ সালে শুধু চীনের পর্যটকদের ভ্রমণের ফলে উত্তর কোরিয়া ১৭৫ মিলিয়ন ইউরো আয় করেছিল বলে জানা গেছে।