cosmetics-ad

দক্ষিণ কোরিয়ার মডেলে তিনশ স্কুল-কলেজে করোনা পরীক্ষার বুথ হচ্ছে

corona-test

করোনাভাইরাস সন্দেহভাজন রোগীদের নমুনা সংগ্রহ করতে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে দক্ষিণ কোরিয়ার মডেলে তিন শতাধিক বুথ (কিয়স্ক) স্থাপিত হচ্ছে। প্রাথমিক পর্যায়ে সারাদেশে ৪৪টি বুথ স্থাপনের কার্যক্রম শেষ হয়েছে। তার মধ্যে ঢাকার সরকারি তিতুমীর কলেজে একটিসহ মোট আটটি, নারায়ণগঞ্জে আটটি ও বাকিগুলো বিভিন্ন বিভাগে স্থাপনের কাজ শেষ হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সারাদেশে এমন সর্বমোট ৩২০টি বুথ স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তবে ব্যস্ততার কারণে তিনি তাৎক্ষণিকভাবে বিস্তারিত কিছু বলতে রাজি হননি। নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সহায়তায় এসব বুথ বসানো হচ্ছে। মূলত স্কুল ও কলেজ প্রাঙ্গণে এ বুথগুলো বসানো হবে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা জানান, এ ধরনের বুথ স্থাপনের ফলে পরীক্ষার জন্য বারবার হটলাইনে ফোন করতে হবে না। ফলে জনগণের ভোগান্তি কমবে। পরীক্ষার জন্য যে কেউ নির্ধারিত বুথে গিয়ে নমুনা দিতে পারবেন। সংস্থাটির নমুনা সংগ্রহের পর স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিজস্ব পরীক্ষাগারে এসব নমুনা পরীক্ষা করা হবে।

সন্দেহভাজন রোগীদের কাছ থেকে এসব নমুনা সংগ্রহের সময় স্বাস্থ্যকর্মীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের ব্যবস্থা থাকবে বলে ওই কর্মকর্তা জানান। দক্ষিণ কোরিয়ার সিউলের একটি হাসপাতাল এইচ প্লাস ইয়াং জি এ ধরনের বুথের মাধ্যমে পরীক্ষার সুবিধা চালু করেছিল। পরবর্তীতে ভারতের কেরালা রাজ্য এটি চালু হয়।

উল্লেখ্য, গত ২৮ জানুয়ারি থেকে সন্দেহজনক করোনাভাইরাস সংক্রমিতদের পরীক্ষা শুরু করে স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। মার্চ মাস পর্যন্ত শুধু আইইডিসিআরে এই পরীক্ষা করা হতো। তবে গত কয়েক সপ্তাহে পরীক্ষার সুবিধা ঢাকায় ৯টি এবং অন্য জেলায় ৫টি করে মোট ১৭টি উন্নীত করা হয়। আরও বেশ কয়েকটি ল্যাবরেটরি স্থাপনের কার্যক্রম প্রায় চূড়ান্ত।

দেশে গত ৮ মার্চ প্রথম কোনো রোগী শনাক্ত হয়। স্বাস্থ্য অধিদফতরের সর্বশেষ (১৩ এপ্রিল) অনলাইন হেলথ বুলেটিনে জানানো হয়, এ পর্যন্ত দেশে সর্বমোট ১১ হাজার ২২৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষাকৃত নমুনার মধ্যে ৮০৩ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়।

সর্বশেষ গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বমোট এক হাজার ৫৭০টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৮২ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৫ জনের মৃত্যু হয়।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহভাজন রোগীদের বেশি বেশি নমুনা পরীক্ষা করে সারাদেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ এবং তাদের সুচিকিৎসা প্রদানের আওতায় আনার লক্ষ্যে সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে নমুনা সংগ্রহ বৃদ্ধি করা হচ্ছে।