Search
Close this search box.
Search
Close this search box.

যোগাযোগ এখন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়

যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের নাম পরিবর্তন করেছে সরকার। এ মন্ত্রণালয়ের নাম পরিবর্তন করে নতুন নাম দেওয়া হয়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়।আর সড়ক বিভাগের নাম করা হয়েছে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ।বুধবার মন্ত্রিপরিষদ সচিব স্বাক্ষরিত এ বিষয়ক একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

এর আগে কয়েক মাস আগে যোগাযোগ মন্ত্রণালয় ও সড়ক বিভাগ নাম পরিবর্তনের প্রস্তাব পাঠায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে। এরপর বিষয়টি নিয়ে আলোচনার পর গত ২০ আগস্ট রাষ্ট্রপ্রতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমোদনের জন্য মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন ভূঁইঞা প্রস্তাব পাঠান।

chardike-ad

communication_ministry_914596206প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২৮ আগস্ট প্রস্তাব অনুমোদন করেন। এরপর সোমবার (১ সেপ্টেম্বর) রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ প্রস্তাবটি অনুমোদন দেন। রাষ্ট্রপতির অনুমোদনের পর মঙ্গলবার (২ সেপ্টেম্বর) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ প্রজ্ঞাপন জারির প্রস্তুতি সম্পন্ন করে।

এ প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, মিনিষ্ট্রি অব কমিউনিকেশনস পরিবর্তন করে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় (Ministry of Road Transport & Bridge) এবং রোড ডিভিশন পরিবর্তন করে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ (Road Transport and Highways Divition) করা হলো।

২০১১ সালের ডিসেম্বরে যোগাযোগ মন্ত্রণালয়কে ভেঙে নতুন রেল মন্ত্রণালয় গঠন করে সরকার। প্রথম রেল মন্ত্রনালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী নিযুক্ত হন সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত রেল মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব ছেড়ে দিলে মহাজোট সরকারের শেষ মেয়াদ পর্যন্ত মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করেন ওবায়দুল কাদের।

এরপর গত ১২ জানুয়ারি বর্তমান সরকারের সময় রেল মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান মুজিবুল হক। মুজিবুল হক এখনও এ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে রয়েছেন।