Search
Close this search box.
Search
Close this search box.

অবিবাহিত নারীদের আন্দোলন নিয়ে চিন্তায় দক্ষিণ কোরিয়া

korean-womenব্যাপক এক সমস্যায় পড়েছে দক্ষিণ কোরিয়া। দেশটির নারীরা দিন দিন বিয়ে ও মাতৃত্বের প্রতি আগ্রহ হারাচ্ছে। শুধু নাই নয়, বিয়ে না করতে তারা একটি আন্দোলনও শুরু করেছে। দক্ষিণ কোরিয়া সরকারের এক পরিসংখ্যানে জানা গেছে, ২০১০ সালে যেখানে দেশটির ৬৪.৭ শতাংশ নারী মনে করতেন বিয়ে তাদের জন্য জরুরি; সেখানে ২০১৮ সালে এসে ৪৮.১ শতাংশ নারী জানায়, তারা বিয়েকে জরুরি মনে করেন না।

chardike-ad

আর এমন পরিস্থিতিতে দক্ষিণ কোরীয় নারীদের বিয়ের প্রতি অনীহা দেশটির সরকারকে সত্যিই চিন্তায় ফেলে দিয়েছে। কেননা বিশ্ব ব্যাংকের এক তথ্যানুযায়ী উন্নত দেশগুলোর মধ্যে দক্ষিণ কোরিয়ায় জন্মহার সবচেয়ে কম।

বিয়ের প্রতি অনীহা প্রকাশ করে যেসব সামাজিক আন্দোলন শুরু হয়েছে তাদের মধ্যে একটি হচ্ছে সোলো-ডারিটি। দক্ষিণ কোরিয়ার জনপ্রিয় ইউটিউব স্টার বায়েক হা-না ইউটিউবে এই ‘সোলো-ডারিটি’ চ্যানেলটি পরিচালনা করেন।

পেশায় অ্যাকাউন্ট্যান্ট বায়েক বলেন, আমার বয়স ৩০-র কোঠায় হওয়া সত্ত্বেও আমি অবিবাহিত থাকায় বা মা না হওয়ায় সমাজের মনোভাব এমন যে আমি ব্যর্থ। নিজেকে কারও ভাবার চেয়ে, এখন আমি নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে আরও উচ্চাকাক্ষী হতে পারি।

বায়েক কিন্তু তার চ্যানেলে বেশ সাড়াও পাচ্ছেন। মাত্র পাঁচ মাসে তার চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা ২৩ হাজার। আরও একটি গ্রুপ আছে যারা বিয়ে না করার ব্যাপারে দক্ষিণ কোরিয়ার নারীদের উৎসাহ দিয়ে থাকে। ওই গ্রুপের নাম হচ্ছে- ‘এলিট উইদাউট ম্যারেজ, অ্যাম গোয়িং ফরওয়ার্ড’। এই গ্রুপের সদস্যরা নিজেদের ‘বি-হোন’ হিসেবে পরিচয় দিয়ে থাকেন। যারা বিয়ে করেননি তাদের দক্ষিণ কোরিয়ায় ‘বি-হোন’ বলা হয়।

এসব গ্রুপের নারীরা একে-অপরকে এ বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করেন। সরকারি চাপ সামলে কীভাবে অবিবাহিত থাকা যায়, সেই পথও খোঁজেন তারা।