বিশ্বের প্রথম বাঁদরের স্কুল

monkey-schoolবাঁদরদেরও স্কুল রয়েছে। অবাক হলেন? এমনই একটি স্কুল আছে মালয়েশিয়ায়। স্কুলটিতে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় বাঁদরদের। গ্রান্ডফাদার ওয়ান নামের এক ব্যক্তি গত চল্লিশ বছর ধরে মালয়েশিয়ার এক ছোট্ট গ্রামে বসে এই কর্মকান্ড চালাচ্ছেন৷ তিনি কৃষকদের সহায়তা করতে ফসল ও ফল উৎপাদনে পারদর্শী করে তুলছেন বাঁদরদের৷ বাঁদরগুলো ফসলের ফলনে সাহায্য করছে৷ এতে কৃষকদের কাজ আরো দ্রুত হচ্ছে, সময়ও লাগছে কম৷

মালয়েশিয়ায় বাঁদর মালিকেরা ছোট লেজোয়ালা বিশেষ প্রজাতির বাঁদরকে গ্রান্ডফাদার ওয়ানের কাছে পাঠান৷ ওয়ান তাদের প্রশিক্ষণ দেন৷ চাষের কাজে তাদের দক্ষ করে তোলেন৷ শুধু তাই নয়, নারকেল গাছ থেকে ডাব পেড়ে আনার কাজটাও দক্ষতার সাথে করে এরা৷

sentbe BT

monkey-schoolকিন্তু পথটা খুব সহজ ছিল না৷ কেননা, ‘অ্যানিমাল রাইটস গ্রুপ’ নামের একটি সংগঠন বাঁদরদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার বিরুদ্ধে আন্দোলন শুরু করেছিল৷ সেসময় ওয়ান দাবি করেন, সেখানে কোনো অত্যাচার চালানো হয়না। পরে আন্দোলনকারীরা তার সেই দাবী মেনে নেন৷

monkey-schoolওয়ান জানান, বাঁদরগুলো তাঁর সন্তানের মতো। স্কুলটিতে প্রচুর নারকেল গাছ রয়েছে। বাঁদরগুলো সেই গাছ বেয়ে ওপরে ওঠে৷ নারকেল ফেললে প্রশংসাও পায়৷ ভালবেসে তাদের পিঠ চাপড়ে দেন ওয়ান৷ এভাবেই প্রশিক্ষণরত বাঁদররা বেড়ে উঠছে।

সূত্র: এএফপি