sentbe-top

অবৈধ অভিবাসীদের বৈধকরণ প্রক্রিয়া চলছে মালয়েশিয়ায়

Malaysiaমালয়েশিয়ায় অবৈধ অভিবাসীদের বৈধকরণ প্রক্রিয়া শেষ হতে আর মাত্র ১০ দিন বাকি। এই সময়ের মধ্যে দেশটির ইমিগ্রেশন বিভাগের হাতে পাসপোর্ট না পৌঁছলে অবৈধ হওয়ার শঙ্কা রয়েছে। অন্যদিকে এসময় বাড়াবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে দেশটির ইমিগ্রেশন বিভাগ। তাই এ ডেট লাইনকে সামনে রেখে মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস যে করেই হোক ৩০ জুনের মধ্যে বাংলাদেশি কর্মীদের মধ্যে পাসপোর্ট বিতরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

দূতাবাস সূত্রে জানা গেছে, আগামী ২৩ ও ২৪ জুন শনি ও রোববার মালয়েশিয়ায় সরকারি ছুটি থাকলেও দূতাবাসসহ জহুর বারু পিনাং, সেরেম্বান, ক্লাং-এ একযোগে বাংলাদেশি কর্মীদের হাতে নতুন পাসপোর্ট প্রদান করা হবে।

বৃহস্পতিবার দূতাবাস থেকে পাসপোর্ট নিতে আসা সোহাগ ও মামুন নামের দুই প্রবাসী এ প্রতিবেদককে বলেন, নতুন পাসপোর্ট আবেদন করেছিলাম ২১ দিন আগে পাসপোর্ট ডেলিভারির ডেট ছিল আজ (২১ জুন)। নির্ধারিত দিনে পাসপোর্ট হাতে পেয়ে আমরা খুবই খুশি। আজই আমরা মালয়েশিয়া ইমিগ্রেশনে ফিঙ্গারিং-এ যাবো।

এ বিষয়ে দূতাবাসের পাসপোর্ট ও ভিসা শাখার প্রথম সচিব মো. মশিউর রহমান তালুকদার জানান, মালয়েশিয়ার চলমান রি- হায়ারিং প্রক্রিয়া শেষ হচ্ছে ৩০ জুন। এর পরিপ্রেক্ষিতে দূতাবাস বাংলাদেশি কর্মীদের দ্রুত পাসপোর্ট ও অন্যান্য সেবা প্রদান করে আসছে। আমরা অত্যন্ত তৎপর রয়েছি প্রবাসী ভাইদের সেবা প্রদানে। চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ২০ জুন পর্যন্ত ৮১ হাজার ৩০৮টি পাসপোর্ট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ৭৯ হাজার ৩৩২ টি পাসপোর্ট প্রদান করা হয়েছে।

প্রবাসীরা আবেদন করেও সময়মতো পাসপোর্ট পাচ্ছে না এমন অভিযোগের বিষয়ে মশিউর রহমান তালুকদার বলেন, মাঝে অল্প কিছুদিন বইয়ের ঘাটতি ছিল বিধায় বিলম্ব হয়েছে। এখন আর কোনো সমস্যা নেই। আমরা ছুটির দিনগুলোতেও সেবা দিচ্ছি। হাইকমিশনার মহ. শহীদুল ইসলামের নির্দেশে ৩০ জুনের ডেট লাইনকে সামনে রেখে দেশটির দূরবর্তী প্রদেশ যেমন জহুর বারু, পেনাং, ক্লাং, সেরেম্বান এলাকায় শনি ও রোববার ছুটির দিনে পাসপোর্ট সেবা দেয়া হবে।

এদিকে মালয়েশিয়ার নতুন সরকার দেশটিতে অবৈধ অভিবাসীদের বৈধ করার সময় ৩০ জুনের পরে আর বাড়াবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে। ৩০ জুনের পর থেকে অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু হবে।

দেশটির অভিবাসন বিভাগ বলছে, দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষার স্বার্থে অবৈধ অভিবাসন সমস্যা মোকাবেলার প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এ পর্যন্ত বাংলাদেশিসহ সহস্রাধিক অবৈধ অভিবাসীকে আটক করা হয়েছে বলে জানা গেছে। দেশটির মানবসম্পদমন্ত্রী এম কুলাসেগারান বলেছেন, এসব অভিবাসীর কাগজপত্র যাচাই শেষে আটক করা হয়েছে।

সৌজন্যে- জাগো নিউজ

sentbe-top