cosmetics-ad

সারাদেশে সেনা টহল জোরদার

army

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাত্র একদিন আগে জোরদার করা হয়েছে সেনাবাহীনির টহল। শুক্রবার সারাদেশে গুরুত্বপূর্ণ স্পটে টহল দিয়েছে সেনাবাহীনির সদস্যরা। টহলের পাশাপাশি সেনাবাহিনী তার নিজ নিজ দায়িত্বপূর্ণ এলাকার আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে নিয়মিতভাবে যোগাযোগ রাখছে এবং যেকোনো প্রয়োজনে সার্বিক সহায়তা করতে প্রস্তুত রয়েছে। এতে ভোটারদের মধ্যে আশার সঞ্চার হয়েছে।

শুক্রবার রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে টহল ও যানবাহনে তল্লাশি করেছে সেনাবাহিনী, বিজিবি, র‌্যাব-পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। ছুটির দিনে ফাঁকা সড়কে যানবাহনের সংখ্যা কম থাকলেও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে টহল, তল্লাশি ও চেকপোস্টের দেখা মিলেছে। গুরুত্বপূর্ণ সড়কের মোড়ে মোড়ে চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

রাজধানীর বাংলামোটর এলাকায় সেনা সদস্যদের তল্লাশি করতে দেখা গেছে। এ সময় রাস্তায় বিভিন্ন যানবাহনে তারা তল্লাশিও চালায়। এর আগে গত ২৪ ডিসেম্বর থেকে নির্বাচন উপলক্ষে সারাদেশে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা হয়। এই কয়েক দিন তারা শুধু টহল পরিচালনা করছেন।

এছাড়াও রাজধানীর আব্দুল্লাহপুর, উত্তরা বিমানবন্দর, খিলক্ষেত, গুলশান বনানী, মহাখালীসহ বাড্ডা, রামপুরা এলাকায় পুলিশ-র‌্যাবের পাশাপাশি সেনাবাহিনীর সদস্যদেরও টহল দিতে দেখা গেছে। বিজিবি সদস্যদের টহল ও নজরদারি রাজধানীর উত্তরা র‌্যাব-১ কার্যালয় থেকে র‌্যাবের টহল শুরু হয়েছে। গুলশান, আব্দুল্লাহপুরসহ রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে তাদের চেকপোস্ট তল্লাশি অব্যাহত রয়েছে।

টহলরত সেনা সদস্যরা জানান, নির্বাচন কেন্দ্রিক যেকোনও সহিংসতা ঠেকাতে আমরা প্রস্তুত রয়েছি। রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে আমাদের টহল ও গোয়ন্দা নজরদারি অব্যাহত রয়েছে। এছাড়াও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে র‌্যাবের চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। যারা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চাইবে তাদের কোনোভাবেই ছাড় দেওয়া হবে না।