sentbe-top

মৃত্যু ভয় জেঁকে বসেছে তসলিমার অন্তরে

taslima-nasrinহালে নিজের অবস্থান থেকে পিছু হটেছেন তসলিমা নাসরিন। মৃত্যু ভয় ভালোই জেঁকে বসেছে তসলিমার অন্তরে। জান বাঁচাতেই এখন সদা তৎপর থাকছেন। সতর্ক হচ্ছেন তার লেখাজোখাতেও। বৃহস্পতিবার দিনের শুরুতেই অর্থাৎ রাত গভীরে ২টার দিকে তার ফেসবুক একাউন্টে স্ট্যাটাস দিয়েছেন, ধর্ম নিয়ে লেখা তিনি বন্ধ করেছেন।

ওই স্ট্যাটাসটিতে তিনি লেখেন, ‘ধর্ম নিয়া লেখা বাদ দিসি. জান বাঁচানো ফরজ. এখন পান সুপারি, রান্না বান্না, লেপ তোশক, আর গোলাপ ফুল নিয়া লেখালেখি করব বৈলা পণ করসি, বুদ্ধি হ্যাজ।’

talimaআবার এর দুঘন্টা পরই তার একাউন্টে স্ট্যাটাস দেন বাংলাদেশের সাম্প্রতিক অভিজিত হত্যাকাণ্ড নিয়ে।তিনি লেখেন, ‘অভিজিতের স্ত্রী বন্যা বলেছে, পুলিশ দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখেছে নৃশংস হত্যাকাণ্ড, কিন্তু এগিয়ে আসেনি. এরপর আর দেশের গল্প শুনতে কোনো ইচ্ছে নেই আমার. এখনো খুনিকে ধরার কোনো লক্ষণ নেই. মনে হচ্ছে গোয়েন্দারা জানে খুনী কে, পুলিশ জানে খুনি কে, সরকার জানে খুনী কে, কিন্তু খুনীর গায়ে টোকা দেওয়ার সাধ্য কারো নেই. দেশটাকে এখন আর দেশ বলে ডাকতে ইচ্ছে করে না. দেশটাকে মানুষ করার ইচ্ছে ছিল.. আজ বুঝি, দেশটা আসলে কোনদিন মানুষ হবে না।’

প্রসঙ্গত, এর আগে এই ফেব্রুয়ারিতে ফ্রান্সের বিতর্কিত পত্রিকা ‘শার্লি এবদো’-তে একটা লেখা পাঠিয়ে আবার ফেরত আনেন। এ ব্যাপারে ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছিলেন, ‘কোপেনহেগেনএ সন্ত্রাসী আক্রমণ হওয়ার পর মনে হলো আমাকে সন্ত্রাসীরা এমনিতেও জবাই করবে, ওমনিতেও করবে, কিন্তু শার্লিতে আমার লেখা দেখলে ওরা হয়ত দ্রুত জবাইয়ের কাজটা সারবে।’

sentbe-top