cosmetics-ad

ছিটমহলে উড়লো লাল সবুজ পতাকা

sitmohol-2

স্থল সীমান্ত চুক্তির অনুসমর্থনের দলিল বিনিময়ের মধ্য দিয়ে ৬৮ বছরের অবরুদ্ধ জীবনের অবসান ঘটল অর্ধ লক্ষাধিক ছিটমহল বাসীর। আনুষ্ঠানিকভাবে খুলে গেল মুক্তির পথ।

ছিটমহলবাসী খুঁজে পেল নতুন দেশের ঠিকানা। দেশ পাওয়ার আনন্দ মিছিলে স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠলো ছিটমহল। বাড়ি বাড়ি উড়ানো হল লাল-সবুজের পতাকা। পটকা ফুটিয়ে, আতশবাজী করে আনন্দ-উল্লাস করছে ছিটের বাসিন্দারা। আনন্দের জোয়ারে ভাসছে তারা। আনন্দ ভাগাভাগি করতে একে অপরকে আলিঙ্গন করছেন। সেই সঙ্গে ঘরে ঘরে চলছে মিষ্টি বিতরণ।

সব ছিটমহলেই শনিবার আনুষ্ঠানিকভাবে উত্তোলন করা হয়েছে জাতীয় পতাকা। জানানো হয়েছে সশ্রদ্ধ সালাম। ফুলেল শুভেচ্ছা দেয়া হয়েছে ছিটমহল বিনিময় কমিটির নেতাদের।

sitmohol-1ঢাকায় দুই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদির উপস্থিতিতে স্থল সীমান্ত চুক্তির অনুসমর্থনের দলিল বিনিময় করেছে বাংলাদেশ ও ভারত। বিকেলে লালমনিরহাট জেলার অভ্যন্তরে আদিতমারীর কুটি, বাতৃগাছ, হাতীবান্ধার উত্তর গোতামারী, পাটগ্রাম উপজেলার বাশঁকাটা, উফারমারা, লতাবাড়ী, ভোটবাড়ী, জোংড়া ও কুড়িগ্রামের দাসিয়ারছড়া, কালমাটি, সাবেহগঞ্জ, দিঘলটারি, ছেউটিকুর্শাসসহ সব ছিটমহলের হাজার হাজার নারী, পুরুষ, শিশু বাংলাদেশের লাল সবুজ জাতীয় পতাকা নিয়ে রাস্তায় নেমে আসে। এ সময় আনন্দের সঙ্গে নাচতে থাকে।

দাসিয়ারছড়ার বাসিন্দা আব্দুর রহমান বলেন, বন্দিজীবন থেকে মুক্তি পেলাম। আমরা ৬৮ বছর কাটিয়ে দিয়েছি বন্দি অবস্থায়। প্রজন্মের পর প্রজন্ম এক ভয়ানক জীবন যাপন করেছি। হাসপাতাল নাই, বিদ্যুৎ নাই, স্কুল-কলেজ নাই, বিচার-আচার নাই, কোনো দেশেই সহজে চলাচলে উপায় ছিল না। এখন নতুন দেশ, নতুন ঠিকানা পেলাম। অনেক আনন্দ লাগছে। আশা করছি সরকার তাড়াতাড়ি আমাদের সমস্যা সমাধান করবেন। ছিটমহলে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হবে। আমারা শান্তিতে বসবাস করতে পারবো।

sitmohol-3বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে দলির বিনিময়ের পরে বাংলাদেশের ভিতর ভারতের ১১১টি ছিটমহল বাংলাদেশের ভূখণ্ডের সঙ্গে যুক্ত হবে। একইভাবে ভারতের ভেতরে থাকা বাংলাদেশের ৫১টি ছিটমহল হয়ে যাবে ভারতের ভূমিতে। ছিটমহলবাসীরা তাদের জমিতে তাদের ভিটামাটিতে বসবাসের সুযোগ পাবেন। কাউকে স্থানান্তরের প্রয়োজন হবে না।

ছিটমহলের নাগরিকরা জানান, প্রশাসনের নজরদারি না থাকায় ছিটগুলোতে চলছে সীমাহীন অনিয়ম। অনেকেই নানা হুমকি ধামকির মধ্যে বসবাস করছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।