sentbe-top

বুসানের সেরা তিন আকর্ষণীয় স্থান

দক্ষিণ কোরিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর বুসান। বন্দর নগরী হিসেবে পরিচিত বুসান পর্যটনের জন্যও আকর্ষনীয়। দক্ষিণ কোরিয়া বসবাস করলে ছুটির দিনে উপভোগ করতে পারেন বুসানের সৌন্দর্য্য। বাংলাদেশ থেকে অন্যান্য দেশ থেকে কোরিয়া ভ্রমণে আসলেও বুসান হতে পারে আপনার জন্য ঘুরাঘুরির অন্যতম জায়গা। বুসানের তিনটি আকর্ষণীয় স্থান নিয়ে বাংলা টেলিগ্রাফের বিশেষ আয়োজন।

হেউনদে বীচ (Haeundae Beach)

কোরিয়ার অন্যতম জনপ্রিয় এবং সুন্দর বীচ হিসেবে পরিচিত বুসানের হেউন্দে বীচ। প্রায় ১.৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই বীচে গ্রীষ্মকালে লাখ লাখ পর্যটক ভ্রমণে যান। বাংলাদেশীদের কাছে অনেক জনপ্রিয় এই বীচ। বুসানের সাবওয়ে ব্যবহার করে কিংবা বুসান স্টেশন থেকে টেক্সিতেও ঘুরে আসতে পারেন হেউনদে বীচ।

 

ঠিকানাঃ 264, Haeundaehaebyeon-ro, Haeundae-gu, Busan
부산광역시 해운대구 해운대해변로 264 (우동)

থেজোংদে (Taejongdae)

থেজোংদে মূলত একটি বিনোদনের জন্য নির্মিত এলাকা। বিশাল এলাকা জুড়ে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যের পাশাপাশি কৃত্রিমভাবে তৈরী করা থেজোংদে বুসানের অন্যতম আকর্ষণীয় স্থান। নানা রকম গাছে সমৃদ্ধ এই এলাকা। পাহাড়ের ২০০ মিটার উচ্চতা থেকে সমুদ্র দেখার অপূর্ব সুযোগ পাওয়া যাবে থেজোংদে’তে। ট্রলারে করে সাগরে ঘুরে  বেড়ানোর জন্যেও অনেকেই থেজোংদে ভ্রমণে যান। থেজোংদে ভ্রমণে গেলে কমপক্ষে ৫ থেকে ৬ ঘন্টা সময় নিয়ে যাওয়া ভাল।

ঠিকানাঃ 24, Jeonmang-ro, Yeongdo-gu, Busan
부산광역시 영도구 전망로 24 (동삼동)

 

হেদোং ইয়োং গুংসা (Haedong Yonggungsa)

হেদোং ইয়োং গুংসা একটি প্রাচীন বৌদ্ধ মন্দির। ১৩ ৭৬ সালে কোরীয় রাজবংশের আমলে এই মন্দির নির্মাণ করা হয়। মন্দিরের আশেআশের সৌন্দর্য্য ভ্রমণ পিপাসুদের অন্যতম আকর্ষণ। সমুদ্রের পাশে বড় বড় পাথরের সম্মিলন স্থানটিকে পর্যটকদের জন্য করে তুলেছে অন্যতম আকর্ষণ হিসেবে।

 

ঠিকানাঃ 86, Yonggung-gil, Gijang-eup, Gijang-gun, Busan

부산광역시 기장군 기장읍 용궁길 86

sentbe-top