sentbe-top

দক্ষিণ কোরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্টের মামলার রায় সরাসরি টিভিতে

parkদুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত দক্ষিণ কোরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট পার্ক গিউন-হে’র বিচারকাজ টেলিভিশনে সরাসরি দেখানো হবে। সিউলের একটি আদালত গতকাল মঙ্গলবার এ তথ্য জানায়। এ মামলায় অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাঁর সর্বোচ্চ ৩০ বছরের সাজা হতে পারে।

আইনজীবীরা তাঁর ৩০ বছরের কারাদণ্ডের পাশাপাশি ১১ কোটি মার্কিন ডলার জরিমানার আরজি জানিয়েছেন। গত বছরের মার্চে দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত পার্ক গিউন-হেকে বরখাস্ত করেন দেশটির সাংবিধানিক আদালত। দুর্নীতির কেলেঙ্কারির জেরে পার্লামেন্টে অভিশংসন প্রস্তাব পাস হওয়ার পর দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত এ রায় দিয়েছিলেন।

পার্ক গিউন-হে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট ছিলেন। সাবেক সামরিক কর্মকর্তা ও প্রেসিডেন্ট পার্ক চুং-হির মেয়ে। তিনিই দেশটির প্রথম প্রেসিডেন্ট, যিনি অভিশংসিত হয়েছেন। ৬৬ বছর বয়সী পার্ক গিউন এক বছর ধরে কারাগারে আছেন। সিউলের সেন্ট্রাল ডিস্ট্রিক্ট কোর্ট জনস্বার্থে পার্কের দুর্নীতি মামলার রায় সরাসরি টেলিভিশনে সম্প্রচারের অনুমতি দিয়েছে। শুক্রবার বিকেলে এ মামলার রায় ঘোষণার দিন ধার্য রয়েছে।

গত বছর দেশটির সর্বোচ্চ আদালত বিচারকাজ সরাসরি প্রচারসহ কোর্টের কার্যবিধিতে বিভিন্ন ধরনের পরিবর্তন আনেন। এরপর এই প্রথম টেলিভিশনে বিচারপ্রক্রিয়া সরাসরি সম্প্রচার করা হবে। পার্ক গিউন-হের ঘনিষ্ঠ বান্ধবী চোই সুন-সিল ক্ষমতার অপব্যবহার করে আর্থিক সুবিধা নিয়েছেন বলে অভিযোগ ওঠার পর এ সংকটের সূচনা হয়। চোই সুন-সিল কোনো সরকারি পদে না থাকলেও ব্যাপক প্রভাবের অধিকারী ছিলেন বলে মনে করা হয়।

sentbe-top