sentbe-top

বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক ব্যক্তি এখন সিলেটের তৈয়ব আলী!

toiyob-aliবাংলাদেশে শত বছরের বেশি জীবিত এক ব্যক্তির সন্ধান পাওয়া গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, তিনিই পৃথিবীর সবচেয়ে বয়স্ক মানুষ, যার জন্ম ১৮৮৪ সালে। শত বছরের অধিক বয়সী এই ব্যক্তির নাম তৈয়ব আলী। বাড়ি সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায়। দীর্ঘকাল বেঁচে থাকার পাশাপাশি তার উচ্চতাও অনেক বেশি। তৈয়ব আলী লম্বায় প্রায় সাড়ে ছয় ফুট।

ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার ঘিলাছড়া ইউনিয়নের পশ্চিম যুধিষ্ঠিপুর গ্রামের বাসিন্দা তৈয়ব আলী। তাকে দেখেই বোঝা যায় তিনি একসময় সুঠাম দেহের অধিকারী ছিলেন। তিনি এখনো সুস্থ-সবল। নিজে নিজেই সব কাজ করতে পারেন। চোখের দৃষ্টি শক্তিও ভালো।

তৈয়ব আলী জানান, তার বয়স বর্তমানে ১৩৫ বছর। কিন্তু তৈয়বের জাতীয় পরিচয়পত্র অনুযায়ী তার জন্ম সাল ১৯১২। এ ব্যাপারে তৈয়ব বলেন, ‘তথ্যটি সঠিক নয়। নির্বাচনের সময় লোকজন আমাকে কোন কিছু জিজ্ঞাসা না করেই অনুমান করে এই সাল দিয়েছে। আমার নিজের হিসাব মতে জন্ম ১৮৮৪ সালের দিকে। বর্তমানে বয়স চলছে ১৩৫ বছর।’

তৈয়ব ব্যক্তিগত জীবনে ১০ ছেলে ও ৩ মেয়ের জনক। তার বড় ছেলের নাম শামসুল ইসলাম। তার বয়স ৮২ বছর। তার আগে তার বড় দুই ছেলে মারা গিয়েছে। তৈয়ব জানান, তার সময়ে তিনি ক্লাস ফোর পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন। ব্রিটিশ যুদ্ধ, ৫২-এর ভাষা আন্দোলন, স্বাধীনতাযুদ্ধ সব দেখেছেন।’

তিনি বলেন, ‘স্বাধীনতাযুদ্ধ মাত্র কয়েক দিন আগের ঘটনা।’ তৈয়ব সবকিছুই গদগদ করে বলে দিতে পারেন। যেন ইতিহাসের সাক্ষী। তৈয়ব আলীর বাবা আমজাদও ছিলেন দীর্ঘজীবী। আমজাদ উল্লাহ ১১৩ বছর বয়সে মারা যান।

প্রসঙ্গত, ইন্দোনেশিয়ায় সোদিমেদজো নামের এক ব্যক্তি পৃথিবীর সবচেয়ে বয়স্ক মানুষ হিসেবে ১৪৬ বছর বয়সে মারা যান। তার মৃত্যুর পর বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক মানুষ ছিলেন বাংলাদেশের পাবনা জেলার আহসান উদ্দিন শাহ্। যিনি গতবছর মারা যান। ফেঞ্চুগঞ্জের স্থানীয়রা বলছেন, এখন তৈয়ব আলীই হবেন বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক মানুষ।

sentbe-top