cosmetics-ad

‘ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাকের অবদান শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ রাখবে জামায়াত’

razzak

দলের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেলের পদ থেকে পদত্যাগ করার কয়েকঘণ্টার মধ্যে অবস্থান জানিয়েছে জামায়াতে ইসলামী। দলটির সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান বলেন, ‘ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাকসহ আমরা দীর্ঘদিন একইসঙ্গে এই সংগঠনে কাজ করেছি। তিনি জামায়াতে ইসলামীর একজন সিনিয়র পর্যায়ের দায়িত্বশীল নেতা ছিলেন। তার অতীতের সব অবদান আমরা শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করি।’

শুক্রবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে তিনটার দিকে এক বিবৃতিতে শফিকুর রহমান এ কথা বলেন। এ দিন সকালে খবর আসে ব্যারিস্টার রাজ্জাক পদত্যাগ করেছেন। তিনি বর্তমানে লন্ডনে বসবাস করছেন।

সেক্রেটারি জেনারেল বলেন, ‘তার পদত্যাগে আমরা ব্যথিত ও মর্মাহত। পদত্যাগ করা যেকোনও সদস্যের স্বীকৃত অধিকার। আমরা দোয়া করি, তিনি যেখানেই থাকুন, ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। আমরা আশা করি, তার সঙ্গে আমাদের মহব্বতের সম্পর্ক অব্যাহত থাকবে।’

এর আগে শুক্রবার সকালে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর জয়েন্ট সেক্রেটারি জেনারেল ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক এক বিবৃতিতে দল থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দেন। যুক্তরাজ্য থেকে পাঠানো ওই বিবৃতিতে দলের আমির মকবুল আহমদের কাছে আব্দুর রাজ্জাক তার পদত্যাগপত্র পেশ করেন।

রাজ্জাক বলেছেন, তিনি দীর্ঘদিন ধরে চেষ্টা করেছে যাতে একাত্তরের ভূমিকার কারণে দলটি জাতির কাছ ক্ষমা চায়। এসেক্সের বারকিং থেকে পাঠানো চিঠিতে তিনি এও বলেছেন যে ওই ইস্যুতে তিনি জামায়াতকে বিলুপ্ত করে দেয়ারও প্রস্তাব করেছিলেন দলীয় ফোরামে।

বর্তমানে যুক্তরাজ্যে অবস্থান করা বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের এই আইনজীবী পদত্যাগপত্রে আরো উল্লেখ করেন যে বাংলাদেশের ধর্মনিরপেক্ষ সংবিধানের আওতায় ইসলামি মূল্যবোধের ভিত্তিতে একটি গণতান্ত্রিক দল গড়ে তোলা এখন সময়ের দাবি, কিন্তু সে দাবি অনুযায়ী জামায়াত নিজেকে এখন পর্যন্ত সংস্কার করতে পারেনি।