Search
Close this search box.
Search
Close this search box.

শরীয়তপুরে দাফনের আগে জেগে উঠল গৃহবধূ

sajuমসজিদের মাইক দিয়ে পর পর প্রচার করা হলো তার মৃত্যুর খরব। এলাকাজুড়ে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। স্বজনরা কেঁদেই চলছে। তাদের সান্ত্বনা দিতে এগিয়ে যাচ্ছেন প্রতিবেশীরা। দাফনের জন্য কেউ কেউ গেল কবর খুঁড়তে আর বাঁশের সন্ধানে। এরই মধ্যে খবর এলো চোখ মেলে তাকিয়েছে সেই ‘মৃত নারী’।

chardike-ad

দাফনের আগে জেগে ওঠা সাজু বেগম (৩৫) নামে ওই গৃহবধূ ভেদরগঞ্জ উপজেলার চরভাগা ইউনিয়নের বকাউল কান্দির বাসিন্দা জাহাঙ্গীর পেদার স্ত্রী। তিনি দীর্ঘদিন ধরে শ্বাসকষ্ট ও ক্যান্সারে ভুগছেন।

গৃহবধূর স্বজনদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, শ্বাসকষ্ট ও ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে সাজু বেগম প্রায় দেড় মাস ধরে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। মঙ্গলবার তার অবস্থা অবনতি হলে চিকিৎসকরা তাকে বাড়ি নিয়ে যেতে বলেন। পরে একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসার সময় হঠাৎ শ্বাস-প্রশ্বাস ও কথাবার্তা বন্ধ করে দেয় সাজু বেগম। এ সময় তার সঙ্গে থাকা স্বজনরা তাকে মৃত ভেবে সবখানে খবর ছড়িয়ে দেয়। আর খবর শোনার পর পরই গ্রামের বাড়িতে স্বজনদের মাঝে শুরু হয় কান্নাকাটি।

মৃত্যুর খবর মাইকে প্রচার করে প্রস্তুতি নেয়া হয় দাফনের। কিন্তু ঘণ্টা দেড়েক পরেই চোখ মেলে তাকান সাজু বেগম। তবে তিনি এখনও আশঙ্কামুক্ত নন। যেকোনো মুহূর্তে মারা যেতে পারে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

সাজু বেগমের দেবর মাঈনুদ্দিন পেদা বলেন, যা হওয়ার তা তো হয়েছে। সবার কাছে দোয়া চাই, আল্লাহ যেন তাকে পুরোপুরি সুস্থ করে তোলেন।

সৌজন্যে- জাগো নিউজ