Search
Close this search box.
Search
Close this search box.

লেবাননে অবৈধ বাংলাদেশিদের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা

lebanonলেবাননে অবৈধভাবে বসবাসকারীদের দেশে স্বেচ্ছায় ফিরে আসতে শর্ত সহজ করেছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। দেশে ফিরে আসতে প্রবাসীরা তিন ধাপে আবেদন করতে পারবেন। ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত আবেদন করা যাবে।

chardike-ad

শুক্রবার (৬ সেপ্টেম্বর) সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান লেবাননে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার। স্থানীয় সময় বিকেলে বৈরুত দূতাবাসের হলরুমে এ এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার বলেন, লেবাননে অবৈধভাবে বসবাসরত প্রায় ৪০ হাজার বাংলাদেশি নাগরিকদের সহজে দেশে প্রত্যাবর্তনের ব্যবস্থা করার লক্ষ্যে দূতাবাস দীর্ঘদিন ধরে চেষ্টা করে আসছিল। দূতাবাসের দীর্ঘ প্রচেষ্টার ফলে সম্প্রতি লেবাননের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সহজ শর্তে তাদেরকে দেশে ফিরে যাওয়ার জন্য বিশেষ সুযোগ প্রদানে সম্মত হয়েছেন।

তিনি বলেন, ‌এই কর্মসূচি ৩টি ধাপে আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত চালু থাকবে। প্রথম ধাপে আগামী ১৫, ১৬ ও ১৭ সেপ্টেম্বর, দ্বিতীয় ধাপে আগামী নভেম্বর ও তৃতীয় ধাপে ডিসেম্বরে এই আবেদন গ্রহণ করা হবে। আবেদনকারী পুরুষ কর্মীর ক্ষেত্রে এক বছরের জরিমানা বাবদ ২৬৭ মার্কিন ডলার ও নারী কর্মীর ক্ষেত্রে ২০০ মার্কিন ডলারসহ বিমান টিকিটের মূল্য বাবদ ৩০০ মার্কিন ডলার নিয়ে সশরীরে দূতাবাসে হাজির হয়ে আবেদন করতে হবে।

দালাল বা অন্য কারো হাতে প্রেরিত আবেদন গ্রহণ করা হবে না। যাদের নামে চুরি, মাদক ও ফৌজদারি মামলা বা আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানা রয়েছে তারা এ কর্মসূচির আওতায় পড়বে না। যারা দেশে যাওয়ার আবেদন করবেন, ক্লিয়ারেন্স পাওয়ার পর অবশ্যই তাদেরকে দেশে ফিরে যেতে হবে। অন্যথায় লেবাননের জেনারেল সিকিউরিটি তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে-যোগ করেন রাষ্ট্রদূত।

দূতাবাস আশা করছে, বড় অঙ্কের জরিমানা থেকে রক্ষা পেতে সকলে এই সুযোগটি গ্রহণ করে পরিবার-পরিজনের কাছে ফিরে যেতে সক্ষম হবে। সংবাদ সম্মেলনে দূতাবাসের শ্রম সচিব আব্দুল্লাহ আল মামুন, দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা, বাংলাদেশি কমিউনিটিসহ প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।