cosmetics-ad

না খেলেই বিশ্বকাপের টিকিট পেল ভারত, অপেক্ষায় পাকিস্তান

india-women-team

রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে গতবছর হয়নি ভারত ও পাকিস্তানের নারী দলের মধ্যকার ওয়ানডে সিরিজ। ফলে সেই সিরিজের পয়েন্ট ভাগাভাগি করার সিদ্ধান্ত জানিয়েছে আইসিসির টেকনিক্যাল কমিটি। দুই দলকেই দেয়া হয়েছে ৩টি করে পয়েন্ট।

সেই সিরিজের পয়েন্ট ভাগাভাগি হওয়ার সুবাদেই আগামী বছরের ওয়ানডে বিশ্বকাপের টিকিট নিশ্চিত হয়ে গেছে ভারতীয় নারী ক্রিকেট দলের। তবে অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে পাকিস্তানকে। চলতি বছরের জুলাইয়ে নির্ধারিত বাছাইপর্ব খেলতে হবে তাদের।

শুধু ভারত-পাকিস্তান নয়, বাতিল করা হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা-অস্ট্রেলিয়া এবং শ্রীলঙ্কা-নিউজিল্যান্ড সিরিজও। করোনা ভাইরাসের কারণে প্রাথমিকভাবে স্থগিত করা হয়েছিল এ সিরিজ দুইটি। টেকনিক্যাল কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক এ চার দলও পাচ্ছে আইসিসি নারী চ্যাম্পিয়নশিপের ৩টি করে পয়েন্ট।

গতবছরের জুলাই থেকে নভেম্বরের মধ্যে হওয়ার কথা ছিল ভারত-পাকিস্তান সিরিজটি। কিন্তু ভারত সরকারের অনুমতি ছিল না বিধায় মাঠে গড়ায়নি এ সিরিজটি। এ ব্যাপারে আগেই আইসিসিকে লিখিতভাবে জানানোয় দুই দলকে সমান ৩ পয়েন্ট করে দেয়া হয়েছে।

অন্যথায় ২০১৬ সালের মতো এবারও পূর্ণ পয়েন্ট পেতে পারত পাকিস্তান। সেবারও একই কারণে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ খেলেনি ভারত এবং আইসিসিতেও মৌখিক বা লিখিত কোন কারণ দেখায়নি। ফলে তখন পূর্ণ ৬ পয়েন্টই দেয়া হয়েছিল পাকিস্তানকে।

আইসিসির দেয়া বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘ভারত-পাকিস্তান সিরিজের ব্যাপারে আলোচনা করতে গিয়ে টেকনিক্যাল কমিটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, অনিবার্যকারণবশত এটি মাঠে গড়ানো সম্ভব হয়নি। কারণ ভারতীয় ক্রিকেট দল তাদের সরকারের অনুমতি পায়নি। যা কি না আইসিসি নারী চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ ছিল।’

ভারত-পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকা-অস্ট্রেলিয়া এবং শ্রীলঙ্কা-নিউজিল্যান্ড সিরিজে পয়েন্ট ভাগাভাগির ফলে বিশ্বকাপের টিকিট নিশ্চিত করা চতুর্থ দল হয়েছে ভারত। আগেই বিশ্বকাপ নিশ্চিত ছিল অস্ট্রেলিয়া (৩৭ পয়েন্ট), ইংল্যান্ড (২৯ পয়েন্ট) ও দক্ষিণ আফ্রিকার (২৫ পয়েন্ট) । বোনাস পাওয়া ৩ পয়েন্টের পর ভারতের ঝুলিতে এখন রয়েছে ২৩ পয়েন্ট।

যদি সিরিজটি বাতিল না হতো এবং ২০১৬ সালের মতো এবারও পূর্ণ পয়েন্ট দেয়া হতো পাকিস্তানকে, তাহলে ভারতকে অপেক্ষায় রেখে তারাই পেত বিশ্বকাপের টিকিট। কারণ তখন পাকিস্তানের পয়েন্ট হতো ২২ এবং ভারতের থাকত ২০। কিন্তু ভাগাভাগি হওয়ায় ১৯ পয়েন্ট নিয়ে বাছাইপর্ব খেলতে হবে তাদের।

অবশ্য পাকিস্তানের চেয়ে কম পয়েন্ট থাকার পরেও, স্বাগতিক দেশ হওয়ার কারণে পঞ্চম দেশ হিসেবে বিশ্বকাপ আগে থেকেই নিশ্চিত নিউজিল্যান্ডের। তাদের সংগ্রহ ১৭ পয়েন্ট। আইসিসি নারী চ্যাম্পিয়নশিপে খেলা বাকি দুই দল ওয়েস্ট ইন্ডিজের সংগ্রহ ১৩ এবং শ্রীলঙ্কার মাত্র ৫।

আগামী বছর নিউজিল্যান্ডে হতে যাওয়া বিশ্বকাপে অংশ নেবে ৮টি দল। ফলে এখনও বাকি রয়েছে ৩টি টিকিট। এই তিন টিকিটের লড়াই হওয়ার কথা রয়েছে আগামী জুলাই মাসে, শ্রীলঙ্কাতে। তবে করোনা পরিস্থিতির কারণে বাছাইপর্বের ব্যাপারে ভাবতে শুরু করেছে আইসিসি।

বাছাইপর্বে খেলবে নারী চ্যাম্পিয়নশিপের তিন দল পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও শ্রীলঙ্কা; ওয়ানডে স্ট্যাটাস থাকা দুই দল বাংলাদেশ ও আয়ারল্যান্ড এবং আঞ্চলিক বাছাই পেরিয়ে আসা পাঁচ দল থাইল্যান্ড, জিম্বাবুয়ে, পাপুয়া নিউগিনি, যুক্তরাষ্ট্র এবং নেদারল্যান্ডস।