Search
Close this search box.
Search
Close this search box.

আসছে নতুন নির্দেশনা, বাড়ছে সাধারণ ছুটি

corona-roadকরোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ পরিস্থিতির মধ্যে দেশে চলমান সাধারণ ছুটি আরও বাড়ছে। নতুন নানা নির্দেশনা সাপেক্ষে ছুটি বাড়িয়ে বুধবার (২২ এপ্রিল) জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে। মঙ্গলবার (২১ এপ্রিল) বিকেলে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

করোনা সংক্রমণ রোধে গত ২৬ মার্চ থেকে আগামী ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত দেশে টানা ৩১ দিনের ছুটি চলছে। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির উন্নতি নেই। সারাদেশকে করোনাভাইরাস সংক্রমণের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করেছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

Ads code goes here

ইতোমধ্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে গঠিত করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জাতীয় কমিটি আরও ৭ দিন ছুটি বাড়ানোর সুপারিশ করেছে। তবে ছুটি কতদিন বাড়বে সেই বিষয়ে এখন নিশ্চিত নন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিদ্ধান্ত দেবেন।

ছুটি বাড়ানোর বিষয়ে জানতে চাইলে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আগামীকাল (বুধবার) ছুটি বাড়ানোর সিদ্ধান্ত আসবে। ছুটি তো বাড়বেই। অনেক ইন্সট্রাকশনসও (নির্দেশনা) আসবে, ইন্সট্রাকশনসে অনেক ভিন্নতা থাকবে। সেখানে ডিটেইল থাকবে।’

কী কী নতুন নির্দেশনা থাকছে- জানতে চাইলে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘সেটা প্রজ্ঞাপন জারি হলেই জানা যাবে।’ কতদিন ছুটি বাড়বে-এ বিষয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘একটু অপেক্ষা করেন, কালকেই জানা যাবে।’

এদিকে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে দীর্ঘ সময় ধরে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় এবার একাডেমিক ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ঐচ্ছিক শিক্ষা ছুটি সীমিত করার কথা ভাবা হচ্ছে। মঙ্গলবার সকালে শিক্ষা সচিব মাহাবুব হোসেনের সঙ্গে দেশের ১১টি শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক, সিনিয়র সিস্টেম অ্যানালিস্টসহ সংশ্লিষ্টদের ভিডিও কনফারেন্সে এমন প্রস্তাব জানিয়েছেন বোর্ড চেয়ারম্যানরা।

করোনাভাইরাসের কারণে প্রথমে গত ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে সরকার। পরে তিন দফায় ছুটি ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়। সর্বশেষ মঙ্গলবার (২১ এপ্রিল) স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে জানানো হয়, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৯ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে মহামারি করোনাভাইরাস। ফলে ভাইরাসটিতে এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ১১০ জনের। করোনায় আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন আরও ৪৩৪ জন। ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল তিন হাজার ৩৮২ জনে।

সৌজন্যে- জাগো নিউজ