sentbe-top

কোরিয়ায় বিদেশীদের বিনিয়োগে আকৃষ্ট করতে নতুন ভিসা পদ্ধতি

অনলাইন প্রতিবেদক, ২ জুলাই ২০১৩:

কোরিয়াতে অবস্থানরত বিদেশীদের  বিনিয়োগে আকৃষ্ট করতে নতুন ভিসা পদ্ধতি চালু করবে দক্ষিণ কোরিয়া। যেসব বিদেশী নাগরিক কোরিয়ায় কোন কোম্পানী প্রতিষ্টা করবেন তাঁদেরকে ‘স্টার্ট আপ’ ভিসা দেয়া হবে জানিয়েছে বিচার মন্ত্রনালয়। রোববার মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে এ কথা জানানো হয়। মেধাবী বিদেশীদের আকৃষ্ট করার লক্ষ্যে অভিবাসন আইনের ধারাগুলো খতিয়ে দেখে নতুন ধরনের এ ভিসা তৈরির জন্য মন্ত্রণালয়ের তরফে ইতোমধ্যেই অধ্যাদেশ জারি করা হয়েছে।

krস্নাতক অথবা উচ্চতর ডিগ্রী রয়েছে এমন বিদেশী বা কোরিয়ান নৃতাত্ত্বিক গোষ্ঠীর সদস্যরা কোরিয়ায় নতুন কোন প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে পারলে তাঁদেরকে ডি-৮ স্টার্ট আপ ভিসা দেয়া হবে। এ ভিসা নিয়ে প্রাথমিকভাবে দু’বছর কোরিয়ায় বসবাস করা যাবে।

যদি কোন বিদেশী তাঁর গড়ে তোলা নতুন প্রতিষ্ঠানে ৩০০ মিলিয়ন উওন বা তার বেশী বিনিয়োগ করে এবং দুই বা ততোধিক কোরিয়ানকে সেখানে কাজের সুযোগ করে দিতে পারে তবে উক্ত বিদেশী এফ-৫ স্থায়ী আবাসিক ভিসা পাবে বলে মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

আর যেসব প্রতিভাবান বিদেশী প্রতিষ্ঠান গড়তে ইচ্ছুক তাঁদেরকে ডি-১০ ভিসা দেয়া হবে। এ ভিসা নিয়ে তাঁরা কোরিয়ায় অবস্থান করে ব্যবসায়িক সুযোগ খুঁজতে পারবে। অতঃপর উল্লেখিত শর্তগুলো পুরণ করতে পারলে তাঁদেরকে স্টার্ট আপ ভিসা দেয়া হবে।

এ উদ্যোগের উদ্দেশ্য হচ্ছে প্রতিভাবান বিদেশীদেরকে নতুন শিল্প প্রতিষ্ঠা, কর্মক্ষেত্র তৈরি ও আরও অধিক বিদেশী বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে উদ্বুদ্ধ করা। এ নীতিমালা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মন্ত্রণালয়ের তরফে বিদেশী উদ্যোক্তাদের প্রাথমিক ঋণ প্রদানের জন্য ৫০ মিলিয়ন উওন বরাদ্ধ দেয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে।

বিচার মন্ত্রনালয় বলছে, কানাডা, ব্রিটেন ও সিঙ্গাপুরে এ ধরনের ‘স্টার্ট আপ’ ভিসার ব্যবস্থা রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রও এখন বিদেশী উদ্যোক্তাদের আকৃষ্ট করতে একই পথে হাটছে। তবে এ ব্যাপারে প্রস্তাবিত আইনের সংশোধনীসমূহের বিষয়ে অনলাইনে জনমত গ্রহন করেই তা জাতীয় সংসদে চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য উত্থাপন করা হবে বলে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

sentbe-top