sentbe-top

বিমানে উড়তে ভয় পান? জেনে নিন ভয় মুক্তির কৌশল!

Flying-phobia-manবিমানে চড়ার ভয় বা আকাশে উড়ার ভয় সাধারণ একটি ফোবিয়া। আমেরিকার ছয় জনের মধ্যে একজনের এই ফোবিয়া বা উড়ার আতঙ্ক আছে। এক লক্ষের বেশি মানুষ বিভিন্ন রকম দুর্দশার মধ্য দিয়ে বিমানে চড়ে, অনেকেই এই ভয় থেকে মুক্ত থাকার জন্য বিমানে উঠে অ্যালকোহল বা ঘুমের ঔষধ খায়। যদিও এই সমস্যাটির সমাধান করা সম্ভব। কী কারণে এই ভয়ের সৃষ্টি হয় আর কিভাবে এই ফ্লাইং ফোবিয়া থেকে মুক্তি পাওয়া যায় জেনে নেই আসুন।

যখন কোন ফোবিয়া দূর করার জন্য আপনি চেষ্টা করবেন তখন নিজেকে প্রশ্ন করুন ‘আমি কেমন অনুভব করি’ বা ‘আমার কিভাবে প্রতিক্রিয়া দেখানো উচিৎ’? এই প্রশ্ন গুলার উত্তর বের করতে পারলেই আপনি “এভিও ফোবিয়া” থেকে মুক্ত হতে পারবেন।

অনেক মানুষ মনে করে যে, বিমান ক্র্যাশ করার ভয়ই হচ্ছে ফ্লাইং ফোবিয়া। কিন্তু বেশিরভাগ ফ্লাইং ফোবিয়া আক্রান্তের মধ্যে এই চিন্তা থাকে না। তাঁরা ভাবে যে, তাদের প্যানিক অ্যাটাক হবে। এই রকম ভয়ে ভীত মানুষরাই লিফটে চড়তেও ভয় পান।

উড়ার ভয় বা এভিও ফোভিয়া থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য যে পদক্ষেপ গুলো নেয়া প্রয়োজন তা হল-

১। আপনি কী কারণে ভয় পাচ্ছেন তা নির্ণয় করার চেষ্টা করুন। ভয় পেলে আপনার প্রতিক্রিয়া কী হয় তাও লক্ষ্য করুন।

২। অজ্ঞতার কারণে উদ্বিগ্নতা সৃষ্টি হয়। তাই বিমান সম্পর্কে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করুন। চিন্তাকে তথ্য দ্বারা সীমাবদ্ধ করা যায়। ফলে উদ্বিগ্নতা পুরোপুরি দূর না হলেও আপনি উদ্বিগ্নতাকে ম্যানেজ করতে পারবেন।

৩। ভয় পেলে কী হতে পারে তা অনুমান করার চেষ্টা করুন। অন্য কোন উপায়ে যাতায়াতের চেয়ে বিমানে যাতায়াতের সুবিধা গুলো সম্পর্কে জানুন।

৪। বিপদ ও উদ্বিগ্নতাকে আলাদা করা কঠিন কারণ উভয় ক্ষেত্রেই আমাদের শরীর একই রকম প্রতিক্রিয়া দেখায়। তাই নিশ্চিন্ত হতে হবে আপনার ভয়টা উদ্বিগ্নতার পর্যায়ে গেছে কিনা। ভয় পাওয়ার ফলেই আপনার মধ্যে উদ্বিগ্নতার সৃষ্টি হচ্ছে, তাই আপনার মনকে এটা বোঝাতে হবে যে, উদ্বিগ্ন অনুভব করা মানে বিপদের মধ্যে পড়েছি এমন না। যখন প্রচণ্ড উদ্বিগ্ন হবেন তখনও আপনি নিরাপদেই আছেন দেখবেন।

৫। তাই উদ্বিগ্ন অনুভব করলে আপনি যা করেন তার বিপরীত কিছু করার চেষ্টা করুন।

৬। আপনার সহযাত্রীকে আপনার ভয় সম্পর্কে জানিয়ে রাখুন। এতে তিনি আপনাকে সাহায্য করতে পারবেন।

৭। আপনার প্রতিটা ফ্লাইট বা উড্ডয়নকে গুরুত্ব দিন। আপনি লক্ষ্য করবেন আপনার প্রতিটা ফ্লাইট পরবর্তী ফ্লাইটকে সহজ করে দিবে।

৮। উদ্বিগ্নতা দূর করার জন্য মেডিটেশন করুন। বিমানে উঠার পর নিজেকে বিচ্ছিন্ন করে অন্য কোন বিষয় নিয়ে ভাবুন।

৯। প্লেন ক্রাশের খবর পড়া থেকে বিরত থাকুন।

১০। বিমানের দরজার পাশে সিট না নিয়ে জানালার পাশে নিন।

১১। দিনের বেলার ফ্লাইটে যাতায়াত করুন।

১২। ফ্লাইটের বেশ কিছুক্ষণ আগেই বিমানবন্দরে পৌঁছান।

১৩। বিমানের অ্যাটেন্ডেন্সদের সাথে কথা বলুন।

১৪। সিটে বসার পর গভীরভাবে দম চর্চা করুন।

১৫। সাথে পছন্দের চিপস বা চকলেট রাখুন।

১৬। আপনার মোবাইলে গেম খেলতে মনোযোগ দিন।

১৭। আপনার হাতে একটি রাবার বেন্ট লাগিয়ে রাখুন। খুব বেশি উদ্বিগ্নতা অনুভব করলে বেন্টটি টেনে ছেড়ে দিন।

এসব চর্চার মাধ্যমে ফোবিয়া থেকে বাহির হওয়া যায়। আপনার ভয় লুকিয়ে না রেখে প্রকাশ করুন। সমাধানের উপায় ঠিকই বেরিয়ে আসবে।

লিখেছেন: সাবেরা খাতুন, সৌজন্যেঃ প্রিয়.কম

sentbe-top