cosmetics-ad

একেই বলে ভাগ্য!

brazilllllll

ব্রাজিলের ফুটবল ক্লাব শাপেকোয়েন্স খেলোয়াড় বহনকারী একটি বিমান সোমবার কলম্বিয়ায় বিধ্বস্ত হয়ে ৭৬ জন যাত্রীর মৃত্যুর ঘটনায় পুরো বিশ্ব বিশেষ করে ফুটবল বিশ্ব শোকে মুহ্যমান। বৈদ্যুতিক গোলযোগের কারণে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে বলে ধারণা করছে কর্মকর্তারা। বিমানটি কলম্বিয়ার মেডেলিন শহরের কাছে পাহাড়ী অঞ্চলে আছড়ে পড়ে।

কোপা সুদামেরিকানার ফাইনালে খেলতে ব্রাজিলিয়ান ফুটবল ক্লাবের খেলোয়াড়রা কলম্বিয়া যাচ্ছিল। যাত্রীদের মধ্যে ২১ জন সাংবাদিকও ছিলেন যাদের মধ্যে মাত্র একজন বেঁচে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। সুদামেরিকানা দক্ষিণ আমেরিকায় ইউরোপীয় লীগের সমকক্ষ।

তবে ভুলে পাসপোর্ট নিয়ে না যাওয়ায় ক্লাবটির কোচের ছেলে কাইয়ো জুনিয়র ভাগ্যক্রমে প্রাণে বেঁচে গেছেন। পাসপোর্ট না থাকায় তাকে বিমানেই উঠতে দেয়নি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। ২৫ বছর বয়সী কাইয়ো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইন্সটাগ্রাম ও ফেসবুকে লিখেছেন, বন্ধুরা আমি, আমার ভাই ও আমার মা বেঁচে আছি। এই মুহূর্তে আমাদের ধৈর্য্য ও ব্যক্তিগত কিছু সময় প্রয়োজন, বিশেষ করে আমার মায়ের। তবে সব বার্তার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। পাসপোর্ট ভুলে যাওয়ায় আমার যাওয়া হয়নি। বর্তমানে আমি সাও পাওলোতে রয়েছি।

কাইয়ো ছাড়াও ইনজুরির কারণে ক্লাবটির স্ট্রাইকার আলেহান্দ্রো মারটিনুচ্চিও বিমানে উঠতে পারেননি, সৌভাগ্যক্রমে তিনিও প্রাণে বেঁচে গেছেন।