sentbe-top

বিমান বিধ্বস্তে নিহত কেবিন ক্রুর মেয়ের খোঁজ মিলেছে

nabillaনেপালের কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিধ্বস্ত বিমানের নিহত কেবিন ক্রু নাবিলার দুই বছরের মেয়ে হিয়াকে পাওয়া যাচ্ছিল না। পুলিশ কাজের বুয়াকে আটকের পর ভাষানটেকে নানীর বাসায় শিশুটিকে পাওয়া যায়। উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশ সেখানে গিয়ে এ ব্যাপারে নিশ্চিত হয়েছেন।

উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি মো. আলী হোসেন খাঁন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, মঙ্গলবার দুপুর ১২ টার দিকে হিয়ার খোঁজ মেলে। নানীর পরিবারকে শিশুটিসহ থানায় ডাকা হয়েছে। থানা পুলিশের কাজ শেষে কেবিন ক্রূ নাবিলার মরেদহ আনতে বিমানবন্দর যাবে পরিবার।

গতকাল (সোমবার) নেপালের কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিধ্বস্ত বিমানের কেবিন ক্রু নাবিলার দুই বছরের মেয়ে হিয়াকে নিয়ে বাড়ির বুয়া রুনা পালিয়ে যায় বলে সোমবার রাতেই হিয়ার দাদি বিবি হাজেরা উত্তরার পশ্চিম থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি ৯০২) দায়ের করেন। পরে উত্তরা পশ্চিম থানার ২৩ নং সড়কের পাশের একটি বাসা থেকে কাজের বুয়া রুনাকে (৩০) আটক করে পুলিশ। বর্তমানে সে থানায় আটক রয়েছে।

উল্লেখ্য, গতকাল (সোমবার) নেপালের স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ২০ মিনিটে কাঠমান্ডু ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমানটি বিধ্বস্ত হয়। এ ঘটনায় কমপক্ষে ৫০ জন নিহত হয়েছেন।

ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের মুখপাত্র প্রেম নাথ ঠাকুর জানিয়েছেন, দুই ইঞ্জিন বিশিষ্ট টার্বোপ্রোপ বিমানটি ৬৭ আরোহী ও চার ক্রু নিয়ে ঢাকা থেকে কাঠমান্ডুর উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেছিল। এর মধ্যে ৩৭ পুরুষ, ২৭ নারী ও দুই শিশু ছিল। আরোহীদের মধ্যে অন্তত ৩৩ জন নেপালের নাগরিক।’

sentbe-top