cosmetics-ad

মায়ের আত্মহত্যার পর মেয়ের আত্মহত্যার চেষ্টা

suicide
প্রতিকী ছবি

পারিবারিক কলহের জের ধরে মানিকগঞ্জে গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছেন নবীরন বেগম (৫৫) নামে এক নারী। একই ঘটনায় তার মেয়ে রিমা আক্তার (২৬) একই ভাবে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। শুক্রবার বিকেলে মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার জাগীর ইউনিয়নের জয়রা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতাবস্থায় রিমাকে উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছেন স্থানীয়রা।

নবীরন বেগম ওই গ্রামের হজরত আলীর স্ত্রী।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রায় আট বছর আগে ঢাকার ধামরাই উপজেলার মহিষাশী গ্রামের মোশারফ হোসেনের সঙ্গে নবীরন ও হজরত আলী দম্পতির মেয়ে রিমার বিয়ে হয়। দাম্পত্য কলহের জের ধরে তিন বছর আগে মোশারফ ও রিমার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। এরপর রিমা বাবার বাড়িতে চলে আসলেও তার ছয় বছরের মেয়ে আনিকা আক্তার বাবা মোশারফের কাছে থাকতো।

এদিকে বাবার বাড়িতে থাকায় বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রায়ই মা নবীরনের সঙ্গে রিমার ঝগড়া হতো। শুক্রবার সকালে রিমা তার মেয়েকে দেখতে মহিষাশী গ্রামে যেতে চাইলে বাধা দেন নবীরন। এ নিয়ে মা-মেয়ে মধ্যে ঝগড়ার এক পর্যায়ে ঘরের একটি কক্ষে গলায় ফাঁস নেন নবীরন। এর পরপরই রিমাও পাশের কক্ষে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস নেন। টের পেয়ে প্রতিবেশীরা দু’জনকে উদ্ধার করেন। তবে তার আগেই মৃত্যু হয় নবীরনের।

মানিকগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রকিবুজ্জামান বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। তার মেয়েকে ওই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।