sentbe-top

৫০০ তুর্কি সেনার দেহাবশেষ ফেরত দেবে উত্তর কোরিয়া

turkey-battle
কোরীয় যুদ্ধে দক্ষিণ কোরিয়ার পক্ষে লড়াই করেন তুর্কি সেনারা

১৯৫০-এর দশকে সংঘটিত কোরীয় যুদ্ধে নিহত তুর্কি সেনাদের দেহাবশেষ আঙ্কারাকে ফেরত দেবে উত্তর কোরিয়া। তুরস্কের দৈনিক ডেইলি সাবাহ এ খবর জানিয়ে বলেছে, পিয়ংইয়ং আঙ্কারার কাছে প্রায় ৫০০ তুর্কি সেনার দেহাবশেষ হস্তান্তর করবে।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য দক্ষিণ কোরিয়ায় নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূত আরসিন আরসিন গত সপ্তাহে পিয়ংইয়ং সফর করেন। তিনি দৈনিক সাবাহকে জানান, কোরীয় যুদ্ধের সময় তুরস্কের সেনারা মার্কিন ও ব্রিটিশ সেনাদের পাশে থেকে যুদ্ধ করেন এবং তিন দেশের শত শত সেনা একসঙ্গে নিহত হন। কাজেই তাদের দেহাবশেষ পরস্পর থেকে আলাদা করা ও তাদের জাতীয়তা নির্ধারণের জন্য ডিএনএ পরীক্ষা সম্পন্ন করা হবে। এ প্রক্রিয়া শেষ হতে যথেষ্ট সময় লাগবে বলে তুর্কি রাষ্ট্রদূত জানান।

turkey-army
কোরীয় যুদ্ধে অংশগ্রহণকারী একজন তুর্কি সেনা

সম্প্রতি সিঙ্গাপুরে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাক্ষাতে কোরীয় যুদ্ধে নিহত বিদেশি সৈন্যদের দেহাবশেষ তাদের নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে একটি সমঝোতা হয়। ওই সমঝোতার ভিত্তিতে গত সপ্তাহেই উত্তর কোরিয়া থেকে মার্কিন সেনাদের দেহাবশেষ ফেরত পাঠানোর কাজ শুরু হয়েছে।

১৯৫০ থেকে ১৯৫৩ সাল পর্যন্ত চলা কোরীয় যুদ্ধে জাতিসংঘের তত্ত্বাবধানে হাজার হাজার বিদেশি সেনা দক্ষিণ কোরিয়ার পক্ষে যুদ্ধ করেন। ওই যুদ্ধে ৮৯০ জন তুর্কি সেনা নিহত হন বলে ধারণা করা হয়। ওই যুদ্ধের পর উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক সর্বনিম্ন পর্যায়ে নামিয়ে আনে তুরস্ক।

পার্সটুডে এর সৌজন্যে

sentbe-top