sentbe-top

লন্ডনে ৩০০ গৃহহীনকে খাবার দেন এক মুসলিম

naim
ব্যবসায়ী নাঈম কোরাইশি

প্রতি বৃহস্পতিবার খুব ব্যস্ত সময় কাটে ইস্ট লন্ডনের ব্যবসায়ী নাঈম কোরাইশির। এ দিন ৩০০ মানুষের জন্য খাবার প্রস্তুত ও সরবরাহে ব্যস্ত থাকেন তিনি। শ’তিনেক গৃহহীন লোকের জন্য বিনামূল্যে খাদ্য প্রস্তুত ও ঠিকঠাকভাবে তা সরবরাহ করা তো আর চাট্টিখানি কথা নয়! অবশ্য এ কাজে তাকে সহযোগিতা করে তার ছেলেও।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, নাঈম কোরাইশি দ্য চিকেন স্পট টেকওয়ের মালিক। নিজেদের প্রতিষ্ঠানে তিনি ও তার ছেলে প্রতি সপ্তাহে প্রায় ৩০০ গৃহহীনকে বিনামূল্যে খাবার পরিবেশন করেন।

কোরাইশির বদান্যতায় মুগ্ধ হয়ে কমিউনিটি ও তার কিছু ক্রেতা এই মহৎ উদ্যোগে অংশ নিতে উদ্বুদ্ধ হয়েছেন। এটি একটা ইতিবাচক প্রতিক্রিয়াও সৃষ্টি করেছে স্থানীয়দের মধ্যে।

কোরাইশি সংবাদমাধ্যমকে বলেন, এখানে অনেক গৃহহীন মানুষ রয়েছেন। এ নিয়ে আমি আমার ছেলের সঙ্গে কথা বলি। সেও এতে রাজি হয়। এরপর বাপ-বেটা মিলে সিদ্ধান্ত নিই, আমরা প্রতি বৃহস্পতিবার একটি ফ্রি খাদ্যসেবার আয়োজন করবো।

naim-son
বিনামূল্যের খাবার সরবরাহ করছেন নাঈম কোরাইশির ছেলে

জানালেন, গত চার মাস ধরে তাদের এ কার্যক্রম চলছে। এখানে বিনামূল্যে খাবার খেতে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের লোকজন আসেন। ‘এতে আমাদের আনন্দ আরো বেড়ে যায়,’ বলেন কোরাইশি।

হেতার নামে এক গৃহহীন প্রতি বৃহস্পতিবার কোরাইশির দ্য চিকেন স্পট টেকওয়েতে খেতে আসেন। তার ভাষায়, ‘সম্প্রদায় নিয়ে আমাদের মধ্যে যে ধারণা ছিলো, এই আয়োজন তা বদলে দিয়েছে। এছাড়া বিনামূল্যে খাবার সেবাটি শুধু খাদ্য সরবরাহ করে না বরং একটি সম্প্রদায়ের অনুভূতিকে একত্রিত করে।’

তিনি বলেন, আমি বলতে চাই-এটা এমন একটা আয়োজন যা সত্যিই সবাইকে খুশি ও আনন্দিত করে। আর এখানে এসে আপনি সত্যিই উৎসাহ বোধ করবেন। কারণ এখানকার কর্মকাণ্ড অন্যদের ভালোকাজে অংশগ্রহণ করার প্রেরণা যোগাবে।

কোরাইশি বলেন, আমি একজন মুসলিম। ইসলামে বলা আছে, অন্যকে খাবার খাওয়াতে ও দানশীল হতে। অন্যকে দান করা ও আনন্দ দেওয়া আমার ধর্মীয় বিশ্বাসেরই অংশ। আর সে থেকেই আমি এ কাজ করি।

sentbe-top