cosmetics-ad

অস্ট্রেলিয়ায় শরণার্থীদের মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ

australia

নাউরু ও মানস দ্বীপে আটক শরণার্থীদের মুক্তির দাবিতে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে শত শত মানুষ বিক্ষোভ করেছে। ২৭ অক্টোবর সিডনির প্রাণকেন্দ্রে এই বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভে শিশুসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেয়। এতে সড়কে যান চলাচল সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে যায়। বিক্ষোভকারীরা বলেন, শরণার্থীদের মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়ন এবং তাদের মুক্তির জন্য সরকারকে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে হবে।

অস্ট্রেলিয়ার নিকটবর্তী নাউরু ও মানস দ্বীপে ছয় শতাধিক শরণার্থীকে আটক করে রাখা হয়েছে। এর প্রতিবাদে গত শনিবার মেলবোর্নে মানববন্ধন হয়। সিডনির বিক্ষোভে উপস্থিত ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার রক সংগীতের আইকন জিমি বার্নস। তিনি সপরিবারে বিক্ষোভে অংশ নেন। তিনি বলেন, ‘শরণার্থী শিবিরে যাঁরা আটকে আছেন, তাঁদের কোনো ভবিষ্যৎ নেই, বেঁচে থাকার কোনো নিশ্চয়তা নেই। তাঁদের সঙ্গে এমন আচরণ সত্যি অপরাধমূলক।’

রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের অবস্থানের কথা ইঙ্গিত করে জিমি বলেন, ‘দেশটি (বাংলাদেশ) লাখ লাখ শরণার্থীর থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করছে। তবে এত বড় স্বয়ংসম্পূর্ণ দেশ হয়েও আমরা কেন তা পারব না?’

শরণার্থীদের প্রতি সরকার ও নেতাদের উদাসীন মনোভাবের তীব্র নিন্দা জানান জিমি। তিনি বলেন, ‘আমাদের সরকারের আচরণ, আমাদের রাজনীতিবিদদের আচরণ ন্যক্কারজনক।’

বিশ্বদরবারে অস্ট্রেলিয়া যাতে হাসির পাত্র না হয়ে যায়, সে বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন জিমি। তিনি বলেন, ‘আমার আমেরিকার বন্ধুরা ট্রাম্পের বিরুদ্ধে লড়াই করছেন। তাঁরা আমাদের দিকে তাকিয়ে বলেন, তোমাদের মানবাধিকারের ইতিহাস তো আমাদের চেয়ে জঘন্য।’

সুদিনের আশা ব্যক্ত করে জিমি বলেন, ‘আমাদের একটি দেশ হিসেবে ঘুরে দাঁড়ানো উচিত।’ তবে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, তারা সর্বোচ্চ করছে।