sentbe-top

মাত্র ১০০ দিনেই কৃষকের মুনাফা হবে শত কোটি টাকা : কৃষিমন্ত্রী

মাত্র ১০০ দিনেই ধান চাষে কৃষকের নিট মুনাফা প্রায় ১০০ কোটি টাকা হওয়া সম্ভব বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক। বৃহস্পতিবার (২২ মার্চ) কৃষি মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে (উফসি) আউশ ধান চাষে প্রত্যক কৃষককে বিঘাপ্রতি বীজ ও রাসায়নিক সার খরচ বাবদ ৮৭৫ টাকা প্রণোদনা প্রদান উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই সম্ভাবনার কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘আউশ ধানের জীবনকাল মাত্র ১০০ দিন যা আমন ও বোরো ধানের চেয়ে কম হওয়ায় মৌসুমি বৃষ্টির পানি ও দুই থেকে তিনটি সেচের মাধ্যমেই এই ধান উৎপাদন সম্ভব। বর্তমানে আউশ মৌসুমে সারাদেশে ১৩ লাখ ৬৫ হাজার ৪১২ হেক্টর জমিতে এই ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৬১ হাজার ৩৫৫ হেক্টর জমিতে প্রণোদনা কার্যক্রমের অধীনে বিনামূল্যে বীজ ও সার প্রদান করা হবে’।

দেশের বিভিন্ন জেলায় পতিত ও সাময়িক পতিত জমি আবাদের আওতায় এনে শস্যের নিবিড়তাধানের ফলন বৃদ্ধির লক্ষ্যে কৃষককে এই প্রণোদনা দেওয়া হচ্ছে বলে জানান কৃষি মন্ত্রী। তিনি আরও জানান, প্রণোদনার আওতাধীন জমিতে চাল উৎপাদন হবে এক লাখ ৫৬ হাজার ৪৫২ মেট্রিক টন যার বাজারমূল্যে ৫৭৮ কোটি ৮৭ লাখ ৫৭ হাজার ৫৪০ টাকা। এর থেকে খড় হবে দুই লাখ ৪৬ হাজার ৬৪৩ মেট্রিক টন। যার বাজারমূল্যে ২৪ কোটি ৬৬ লাখ ৪৩ হাজার ৪০৬ টাকা। চাল ও খড় বাবদ মোট আয় হবে ৬০৩ কোটি ৫৪ লাখ ৯৪৫ টাকা।

এদিকে প্রতি বিঘা জমিতে উফসি আউশ চাষ বাবদ কৃষকের মোট খরচ হবে প্রায় ১১ হাজার টাকা। এর মধ্যে প্রত্যেক কৃষককে প্রণোদনা দেওয়া হবে ৮৭৫ টাকা। প্রণোদনার আওতাধীন জমিতে মোট উৎপাদন খরচ হবে ৫০৫ কোটি ১৪ লাখ ৮৬ হাজার টাকা। আয় থেকে খরচ বাদ দিলে নিট লাভ ৯৮ কোটি ৩৯ লাখ ১৪ হাজার ৯৪৫ টাকা বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান কৃষি মন্ত্রী।

sentbe-top