কষ্টের কথা জানিয়ে ডিসিকে চিঠি লিখল দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী

dc-dinajpurএলাকার পরিবেশ রক্ষায় সহযোগিতা চেয়ে দিনাজপুরের ডিসির কাছে চিঠি লিখেছে দ্বিতীয় শ্রেণির এক ছাত্রী। ডিসিকে লেখা শিশুটির ওই চিঠি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, শিশুটির নাম মায়িশা মনাওয়ারা মিশু। দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার হযরতপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণি ছাত্রী মিশু। এলাকার ইটভাটা বন্ধ করা নিয়ে জেলা প্রশাসকের (ডিসি) কাছে চিঠি লিখেছে সে। ডিসিকে পাঠানো ওই চিঠি এখন অনেকের ফেসবুক ওয়ালে ছড়িয়ে পড়েছে। ওই চিঠি বুধবার দিনাজপুরের ডিসি মো. মাহমুদুল আলমের কাছে পৌঁছে যায়। চিঠি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডিসি মো. মাহমুদুল আলম।

দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী মায়িশা মনাওয়ারা মিশু চিঠিতে লিখেছে, ‘মাননীয় ডিসি স্যার, দিনাজপুর। আমার সালাম নেবেন। আমরা দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর উপজেলার হযরতপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ি। আমাদের স্কুলের পাশে বিপ্লব নামের একজন লোক ইটের ভাটা দিয়েছে। ভাটার কালো ধোঁয়ায় আমাদের শ্বাসকষ্ট হয়, পরিবেশের ক্ষতি হয়, চোখ জ্বালা করে। এখন আবার স্কুলের পাশে মুক্তা নামের এক লোক আরেকটি ইটভাটা দিচ্ছে। তাহলে আমাদের আরও কষ্ট হবে, আমরা কিভাবে বাঁচব। আপনি আমাদের বাঁচান। ইতি, মায়িশা মনাওয়ারা মিশু, দ্বিতীয় শ্রেণি, রোল-২।

এ বিষয়ে দিনাজপুরের ডিসি মো. মাহমুদুল আলম বলেন, শিশুটির লেখা ওই চিঠি আমাদের কাছে এসে পৌঁছেছে। চিঠিটি আমি দেখেছি। চিঠিতে উল্লেখ করা ওসব ইটভাটার কার্যক্রম বন্ধে এরই মধ্যে পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এছাড়া অন্য বিদ্যালয়ের আশপাশে যেসব ইটভাটা রয়েছে সেগুলোর কার্যক্রম বন্ধে আমরা পদক্ষেপ নেব।

সৌজন্যে- জাগো নিউজ