cosmetics-ad

হতাশায় জেট এয়ারওয়েজ কর্মীর আত্মহত্যা

jet-airways

ভারতের জেট এয়ারওয়েজের বিমান পরিষেবা বন্ধ হয়ে গেছে। এতে হাজার হাজার কর্মী কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। রাজপথে আন্দোলনে নেমেছেন তারা। এর মধ্যেই বিমান সংস্থাটির এক ঊর্ধ্বতন টেকনিশিয়ান শনিবার মহারাষ্ট্রের পালঘাট জেলায় নিজের বাড়ির ছাদ থেকে লাফিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

গত ১৭ এপ্রিল জেট এয়ারওয়েজের তরফ থেকে জানানো হয় যে, আপৎকালীন তহবিলের টাকা জোগাড় করতে না পারায় সাময়িকভাবে বিমান পরিষেবা বন্ধ রাখা হচ্ছে। এর ফলে এক ধাক্কায় প্রায় ২৩ হাজার কর্মী কর্মহীন হয়ে পড়েন।

পুলিশ জানিয়েছে, জেট এয়ারওয়েজের যে টেকনিশিয়ান আত্মহত্যা করেছেন তিনি মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। একই সঙ্গে তার শরীরে বাসা বেঁধেছিল ক্যান্সার। নিহত ব্যক্তির নাম শৈলেশ সিং, বয়স ৪৫।

নালাসুপারায় নিজের বাড়ি থেকে আত্মহত্যা করেন তিনি। জেটের কর্মচারী অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, আত্মহত্যা করা ওই ব্যক্তি বহুদিন ধরেই আর্থিক কষ্টে ভুগছিলেন। জেটের কর্মীরা অনেকেই বহুদিন ধরে বেতন পাচ্ছিলেন না। এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, শৈলেশ সিং ক্যানসারে ভুগছিলেন এবং তার কেমোথেরাপি চলছিল।

প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, অবসাদের ফলেই তিনি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। জেট বিমান পরিষেবা বন্ধ হওয়ার পর এই প্রথম কোন কর্মীর আত্মহত্যার ঘটনা সামনে এলো। শৈলেশ সিংয়ের এক ছেলে জেট এয়ারওয়েজের অপারেশন বিভাগে কর্মরত। তার স্ত্রী, দুই ছেলে এবং দুই মেয়ে আছে।