cosmetics-ad

দ. কোরিয়ায় ছাদ ধসের ঘটনায় ২২ জনকে দায়ী করেছে পুলিশ

সিউল, ২৮ মার্চ ২০১৪:

দক্ষিণ কোরিয়ার ব্যায়ামাগারে ছাদ ধসের ঘটনায় বৃহস্পতিবার ২২ জনকে প্রাথমিকভাবে দায়ী করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ফৌজদারী অভিযোগ আনা হতে পারে।
গত মাসে ওই ব্যায়ামাগারের ছাদ ধসে পড়ে ১০ জনের মৃত্যু হয়। এদের অধিকাংশই কলেজের নবীন শিক্ষার্থী।

200728221

১৭ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণাঞ্চলীয় খিয়ওংজু নগরীর কাছে পার্বত্যাঞ্চলীয় একটি পর্যটন কেন্দ্রের কাছের ওই ভবনটির ছাদ প্রবল তুষারপাতে সৃষ্ট ভারী বরফের চাপে ধসে পড়ে। এতে দুই শতাধিক লোক আহত হয়।

এএফপি’র এক খবরে বলা হয়, ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যটন কেন্দ্রটিতে কলেজের নবীন বরণ অনুষ্ঠান হচ্ছিল। ওই এলাকায় এর আগের সপ্তাহে অস্বাভাবিক প্রবল তুষারপাত হয়।

পুলিশ এর আগে জানিয়েছিল, ভবনটির গঠনপ্রণালীতে ত্রুটি ছিল ও নির্মাণকাজে ব্যবস্থাপকরা অবহেলা করেছিল বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে।
প্রথমিকভাবে যাদেরকে এ ঘটনার জন্য দায়ী করা হয়েছে তাদের মধ্যে পর্যটন কেন্দ্র ব্যায়ামাগার নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপকদের পাশাপাশি পৌরসভার কর্মকর্তারাও রয়েছেন।

পুলিশ জানায়, তাদের বিরুদ্ধে ভবনটি নির্মাণে সস্তা, অপর্যাপ্ত কাঁচামাল ব্যবহার, ত্রুটিপূর্ণ প্রকল্প অনুমোদন এবং সময় মতো ভবনের ছাদে জমে থাকা বরফ অপসারণ অথবা এ বিষয়ে সতর্ক না করার অভিযোগ আনা হয়েছে।

কোরীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যটকদের জন্য গিয়েংজু একটি জনপ্রিয় পর্যটন কেন্দ্র। এটা এক সময় সিল্লা রাজ্যের রাজধানী ছিল। এখানে অসংখ্য ঐতিহাসিক স্থান রয়েছে। এটা তায়েবায়েক পর্বতমালার দক্ষিণ প্রান্তে অবস্থিত।