Search
Close this search box.
Search
Close this search box.

আইরিশদের কাছে মাত্র ৮৫ রানেই গুটিয়ে গেল বিশ্বকাপজয়ী ইংল্যান্ড!

england-irelandবিশ্বচ্যাম্পিয়ন হওয়ার গন্ধ এখনও শরীর থেকে সরে যায়নি। সদ্য বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হওয়া এই ইংল্যান্ডকেই একি লজ্জায় ডোবালো টেস্ট আঙ্গিনায় সদ্য নাম লেখানো আয়ারল্যান্ড? ক্রিকেটের তীর্থভূমি ঐতিহাসিক লর্ডসে টেস্ট খেলতে নেমে আইরিশ বোলারদের তোপের মুখে ২৩.৪ ওভারে মাত্র ৮৫ রানেই অলআউট হয়ে গেলো ইংল্যান্ড!

chardike-ad

মাত্র এক সপ্তাহ আগে বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপের মুকুট পরেছে ইংলিশরা। এখনও শরীর থেকে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হওয়া উদযাপন করতে গিয়ে যে ঘাম হয়েছিল তার গন্ধও মুচে যায়নি। তার আগেই আবার মাঠে নামতে হয়েছে ইংলিশদের।

কিন্তু মাঠে নেমে এতটা বাজে অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হতে হবে ক্রিকেটের জনক বলে পরিচিত, স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে, তা হয়তো কল্পনাও করতে পারেনি তারা। ৪৩ রানে যখন ৭ উইকেটের পতন ঘটেছিল, তখন তো ইতিহাসের লজ্জার মুখোমুখি দাঁড়িয়ে গিয়েছিল তারা। নিজেদের সর্বনিম্ন ৪৫ রানের রেকর্ডই না ভেঙে ফেলে এবারের জো রুটরা!

england-ireland১৮৮৭ সালে সর্বনিম্ন ৪৫ রানে অলআউট হয়েছিল ইংলিশরা, অস্ট্রেলিয়ার কাছে। এরপর ১৯৯৪ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে মাত্র ৪৬ রানে অলআউট হওয়ার লজ্জায় পুড়েছিল তারা। তবে, দু’বারই ইংলিশদের প্রতিপক্ষ ছিল সময়ের সেরা দুই দল। কিন্তু এবার? ক্রিকেটে এখনও যারা নিতান্তই নবজাতক- সেই আয়ারল্যান্ডই কি না নাকানি-চুবানি খাইয়ে ছাড়লো ইংলিশদের। শেষ মুহূর্তে স্যাম কুরান আর ওলি স্টোন একটু দৃঢ়তা দেখাতে না পারলে তো মহা লজ্জাতেই পড়তে হতো ইংলিশদের।

তবুও ঘরের মাঠে, ক্রিকেটের মক্কা নামে খ্যাত লর্ডসে যেখানে ইংলিশরা অজেয়, সেখানে কোথাকার কোন পুঁচকে আয়ারল্যান্ডের কাছে মাত্র ৮৫ রানে অলআউট। অবশ্যই এটা বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের জন্য একটা লজ্জা! লজ্জা!! লজ্জা!!!।

ক্রিকেটের তীর্থভূমি লর্ডসেই আজ একমাত্র ম্যাচের টেস্ট সিরিজে আয়ারল্যান্ডের মুখোমুখি হয়েছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হওয়ার কারণে তাদের মধ্যে যে উৎসাহ-উদ্দীপনা কাজ করছে, তাতেই তো উড়ে যাওয়ার কথা মাত্র তৃতীয় টেস্ট খেলতে নামা আয়ারল্যান্ড!

england-irelandকিন্তু লর্ডসে একি আশ্চর্য, একি বিস্মকর ঘটনারই না জন্ম দিচ্ছে আয়ারল্যান্ড! টস জিতে ব্যাট করতে নামা স্বাগতিক ইংল্যান্ডের স্কোরবোর্ডে ৪৩ রান যোগ হতে না হতেই ৭ উইকেটের পতন ঘটিয়ে দিয়েছে আইরিশরা।

বিশেষ করে ডানহাতি ফাস্ট মিডিয়াম টিম মুরতাগ যেন কচুটাকা করছেন ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের। ৯ ওভারে ১৩ রান দিয়ে একাই ৫ উইকেট তুলে নিয়েছেন তিনি। এছাড়া মার্ক অ্যাডেয়ার যোগ দিয়েছেন মুরতাগের সঙ্গে। ৭ ওভারে ২৮ রান দিয়ে তিনি নেন ২ উইকেট।

বিশ্বকাপ জয়ী দলের অবশ্য সবাই নেই ইংল্যান্ডে টেস্ট দলে। এছাড়া আর কয়েকদিন পরই শুরু হবে অ্যাশেজ সিরিজ। এ কারণে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে চারদিনের টেস্টে অধিকাংশ খেলোয়াড়কেই বিশ্রাম দেয়া হয়েছে। তবুও বিশ্বকাপজয়ী দলের জো রুট (অধিনায়ক), জেসন রয়, জনি বেয়ারেস্ট, মঈন আলি এবং ক্রিস ওকস রয়েছেন এই দলে।

কিন্তু টস জিতে ব্যাট করতে নামার পরই টিম মুরতাগের তোপের মুখে পড়েন ইংলিশ ওপেনাররা। ররি বার্নস ৬ রানে এবং জেসন রয়কে ৫ রানে ফিরিয়ে দেন মুরতাগ। জো ড্যানলি করেন সর্বোচ্চ ২৩ রান। জো রুট এসে ফিরে গেছেন মাত্র ২ রান করে। জনি বেয়ারেস্ট তো রানের খাতাই খুলতে পারেননি। একই অবস্থা হয়েছে মঈন আলি এবং ক্রিস ওকসেরও।