cosmetics-ad

গোলাম আযমের শারীরিক অবস্থার অবনতি

golam-azam

শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় মানবতাবিরোধী অপরাধে সাজাপ্রাপ্ত জামায়াতের প্রাক্তন আমির গোলাম আযমকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) ভর্তি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে তার প্রেশার কমে যাওয়ায় শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়ে এক পর্যায়ে সঙ্গাহীন হয়ে পড়েন।

গোলাম আযমের ছেলে প্রাক্তন সেনা কর্মকর্তা আমান আযমী বলেন, ‘বাবার অবস্থা বেশি ভালো না। আমি বাবার পাশেই রয়েছি। এখন তার জ্ঞান ফিরেছে।’

২০১৩ সালের ১৫ জুলাই মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে গোলাম আযমকে ৯০ বছরের কারাদ- দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১। পাকিস্তানি বাহিনীর সঙ্গে পরিকল্পনা ও ষড়যন্ত্র সংক্রান্ত ছয়টি, সহযোগিতা সংক্রান্ত তিনটি, উস্কানির ২৮টি, সম্পৃক্ততার ২৩টি এবং ব্যক্তিগতভাবে হত্যা-নির্যাতনের ১টিসহ মোট ৬১টি অভিযোগ আনা হয়েছিল তার বিরুদ্ধে। মানবতাবিরোধী অপরাধের ৬১টি অভিযোগের সব কটিই প্রমাণিত হলেও বয়স বিবেচনায় নিয়ে সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসির পরিবর্তে গোলাম আযমকে ৯০ বছরের কারাদ- দেন ট্রাইব্যুনাল।

পাঁচ ধরনের অভিযোগের মধ্যে প্রথম ও দ্বিতীয় অভিযোগে ১০ বছর করে, তৃতীয় ও চতুর্থ অভিযোগে ২০ বছর করে ও পঞ্চম অভিযোগে ৩০ বছর কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে এ যুদ্ধাপরাধীকে।