sentbe-top

প্রথম বারের মত জেনেভায় মাতৃভাষা দিবস উদযাপন

jenevaসুইজারল্যান্ড : জেনেভা উইনাইটেড নেশনের সামনে প্লাস দে ন্যাশনে (ব্রোকেন চেয়ার চত্বরে) এই প্রথম বারের মত ১৯৫২ সালের ভাষা সৈনিকদের স্মরণে একটি অস্থায়ী শহীদ মিনার স্থাপন করে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানানোর মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদয়াপন করা হয়।

২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও বাংলা ভাষাকে বিশ্বের মানুষের কাছে তুলে ধরার জন্য ও প্রবাসে বেড়ে উঠা বাংলাদেশিদের ভবিষৎ প্রজন্মের কাছে তুলে ধরার জন্য সকল প্রবাসী বাংলাদেশি নারী-পুরুষ সপরিবারে এই অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

শনিবার সকাল থেকে শুরু বৃষ্টি ও তুষার পাত এই প্রতিকূল আবহাওয়াকে উপেক্ষা করে জেনেভা ছাড়াও লুজান এবং জুরিখ থেকে অনেকেই আসেন এই অস্থায়ী শহীদ মিনার চত্বরে ভাষা শহীদের শ্রদ্ধা জানাতে।

শহীদ মিনারে এসে তারা বলেছেন, দেশ ও মাতৃ ভাষার প্রতি আমাদের যে আবেগ, ভালবাসা ও শ্রদ্ধা, তা প্রকাশ করার জন্য যে কোন প্রাকৃতিক বা অন্য কোন প্রতিকুলতা আমাদেরকে আটকাতে পারবে না।

প্রচণ্ড- তুষার পাতের মাঝে সারিবদ্ধ হয়ে, “আমার ভায়ের রক্তে রাঙ্গানো একুশে ফেব্রুয়ারি আমি কি ভুলিতে পারি” গান গাইতে গাইতে অস্থায়ী শহীদ মিনার বেদিতে পুষ্প অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।jeneva_2

জেনাভা বাংলা স্কুল, সুইজারল্যান্ড বিএনপি, জেনেভা বিএনপি, লুজান বিএনপি ও সকল প্রবাসীরা শহীদ মিনার বেদিতে ফুল দিয়ে তাদের শ্রদ্ধা জানান।

প্রতিকূল আবহাওয়ার মাঝে আসার জন্য আগত সকল প্রবাসীদের ধন্যবাদ জানান ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন আয়োজকরা। আবহাওয়া ভাল থাকলে এখানে আরো অনেক বেশি প্রবাসীদের আগমন হতো বলেও জানান তারা।

জেনেভা থেকে : সঞ্জয় রতন বড়ুয়া, মাহবুবুর রহমান, আনওয়ারুল ইসলাম জর্জ, মোখতার হোসাইন টিপু, লুজান থেকে: নুর-নবী রিয়াদ, মফিজুল ইসলাম মান্নু ও জহুরুল ইসলাম মিলন এবং জুরিখ থেকে: বাকিউল্লা বাকি।

sentbe-top