cosmetics-ad

মারা যাওয়ার ২৪ বছর পর সম্মাননা

অনলাইন প্রতিবেদক, ৫ মে ২০১৩, সিউল:

দক্ষিণ কোরিয়ার জাতীয় পুলিশ সংস্থা ১৯৮৯ সালে দেশটির দাঙ্গা পুলিশ ও কলেজ ছাত্রদের মধ্যে এক রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে নিহত সাত পুলিশ কর্মকর্তার স্মরণে স্মারক ভাস্কর্য নির্মাণ করেছে। সুদীর্ঘ ২৪ বছর পর বুসান মহানগর পুলিশ সদর দপ্তরের সামনে নির্মিত ভাস্কর্য উন্মোচন করেন কোরিয়া সরকারের নিরাপত্তা ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী ইয়ো জুং-বক, এসময় উপস্থিত ছিলেন দেশটির প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ। অনেক দেরীতে হলেও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যদের প্রতি এমন সম্মাননাকে সব মহলের তরফে সাধুবাদ জানানো হয়েছে। উন্মোচনের আগে দেয়া সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় মন্ত্রী বলেন, “বিলম্বে হলেও আমরা তাদের আত্মত্যাগের স্বীকৃতি ও ক্ষতিপূরণ দিতে পেরেছি, এজন্য আমি আনন্দিত”।

ভবিষ্যতে তাঁর সরকার জনগণের জানমালের নিরাপত্তা রক্ষা করতে গিয়ে হতাহতদের এভাবেই সম্মানিত করবে বলেও জানান মি. ইয়ো জুং-বক।প্রসঙ্গত, ১৯৮৯ সালে ডং-ইয়ুই বিশ্ববিদ্যালয়ের এক অধ্যাপকের বিরুদ্ধে ভর্তি পরীক্ষায় অনিয়মের অভিযোগ তুলে আন্দোলনে নামে কয়েকটি ছাত্র সংগঠন। বিক্ষুব্ধ ছাত্রদের দমাতে গিয়ে তাদের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে পুলিশ। সে বছরের ২ মে ছাত্ররা ৫ পুলিশ সদস্যকে জিম্মি করলে পরিস্থিতি জটিল আকার ধারণ করে। সশস্ত্র অভিযানে পুলিশ বাহিনী সহকর্মীদের মুক্ত করলেও অজ্ঞাত বন্দুকধারীদের গুলিতে মারা যান অপর ৭ পুলিশ সদস্য।

03221759

এ ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া ৭৭ জন ছাত্রের কয়েকজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়, কয়েকজন ভোগ করেন সাত বছরের সাজা।

তবে তৎকালীন রাজনৈতিক অবস্থা এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ক্ষমতাসীন সরকারের গৃহীত পদক্ষেপ নিয়ে বিতর্ক থাকায় নিহত পুলিশ সদস্যদের সম্মাননার বিষয়টি এতদিন সেভাবে সামনে আসে নি।